BREAKING NEWS

১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  শনিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ঝলসে গেলেন ভেন্টিলেটরে থাকা পাঁচ করোনা রোগী, শুরু তদন্ত

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 13, 2020 11:53 am|    Updated: May 13, 2020 11:55 am

Fire breaks into Russian hospital, kills coronavirus patients

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গলবার সেন্ট পিটার্সবার্গের সেন্ট জর্জ হাসপাতালে আগুন লাগায় ছড়ায় তীব্র আতঙ্ক। ঘটনায় ভেন্টিলেশনে থাকা পাঁচ করোনা আক্রান্তের মৃত্যুও হয়। যে ঘটনায় এবার অপরাধমূলক তদন্ত শুরু হয়েছে।

রাশিয়ায় রীতিমতো দাপট দেখাচ্ছে নোভেল করোনা ভাইরাস। হু হু করে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এমন পরিস্থিতিতে হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ছড়ায় চাঞ্চল্য। প্রাণ হারান ভরতি থাকা পাঁচ করোনা রোগী। যাঁদের মধ্যে চারজন ছিলেন একই ওয়ার্ডের। অন্য একজন ভরতি ছিলেন পাশে ওয়ার্ডে। যে ওয়ার্ডে আগুন লাগে, সেখান থেকে ১০০ জনেরও বেশি রোগীকে নিরাপদে সরিয়ে আনা হয়। কিন্তু পাশের ওয়ার্ডের রোগীর কীভাবে মৃত্যু হল, সেই নিয়েই ধন্দে পুলিশ। আর সেই কারণেই পঞ্চম রোগীর মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ‘চিকিৎসার মাধ্যমে কমানো যাচ্ছে করোনার ভয়াবহতা’, আশার কথা শোনাল WHO]

আগুন আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করার আগেই অবশ্য তা নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়। তবে ঠিক কীভাবে আগুন লাগল তা নিশ্চিত করে এখনও বলা হয়নি। তবে প্রাথমিক অনুমান, ভেন্টিলেটর অতিরিক্ত গরম হয়ে যাওয়ার কারণেই আগুন লাগে। মাত্রাতিরিক্ত গরম হয়ে যাওয়ার জন্যই তা অগ্নিকাণ্ডের কারণ হয়ে ওঠে। রাশিয়ার একটি এজেন্সির দাবি, সেই দেশের কারখানাতেই ভেন্টিলেটরগুলি তৈরি হয়েছে। যা এক অর্থে ত্রুটিপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে। যদিও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেনি। তবে হাসপাতালে পর্যাপ্ত অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল কি না এবং হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে কি না, তা খতিয়ে দেখার জন্যই রাশিয়ার তদন্তকারী কমিটি ক্রিমিনাল বা অপরাধমূলক তদন্ত শুরু করেছে।

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগেই মস্কোর একটি হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সেখানেও করোনা রোগীরা ভরতি ছিলেন। আগুনের গ্রাসে প্রাণ হারান একজন। সেখানেও আগুন লাগার কারণ হিসেবে সামনে আসে ত্রুটিপূর্ণ ভেন্টিলেটরের উপস্থিতি। এবারও প্রায় একই ঘটনা ঘটল সেন্ট পিটার্সবার্গে। তবে মঙ্গলবারের ঘটনায় রোগীদের অন্য কোনও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করতে হয়নি। আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে।

[আরও পড়ুন: ইউহানে ফের মাথাচাড়া দিচ্ছে করোনা, হবে ১ কোটি মানুষের কোভিড পরীক্ষা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে