BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

যে গ্রামে মৃতদেরও বিয়ে হয়!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 15, 2016 6:49 pm|    Updated: May 15, 2016 6:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবিবাহিত অবস্থায় মৃত্যু কি দুর্ভাগ্যের বিষয়?
অনেকেই অনেক কিছু বলতে পারেন এই প্রসঙ্গে। বলতে পারেন, যৌবনের সুখ ভোগ না করে পৃথিবী ছাড়ার মতো করুণ কিছু হয় না। যে কারণে অর্জুনের ছেলে ইরাবানের সঙ্গে নারী রূপ ধারণ করে কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধের সময়ে মিলিত হয়েছিলেন শ্রীকৃষ্ণ!
কিন্তু, অবিবাহিত অবস্থায় মৃত্যু খারাপ- এটা যদি শতাব্দী প্রাচীন লোকবিশ্বাসে দাঁড়িয়ে যায়?
শুনতে অবাক লাগলেও চিনের শাংসি প্রদেশের গ্রামাঞ্চল এমনটাই মনে করে। শাংসির গ্রামাঞ্চলের লোকবিশ্বাস, যে বাড়ির সদস্য অবিবাহিত অবস্থায় মারা যায়, সেই পরিবারে চিরস্থায়ী অমঙ্গল নেমে আসে।
এই লোকবিশ্বাসের কারণেই শাংসির গ্রামাঞ্চলে মৃত ব্যক্তির বিয়ে হয়। যাতে তারা এবং তাদের পরিবার- উভয়েই শান্তি পায়!
হালফিলেই যেমন এক দম্পতি তাঁদের মৃত ছেলের সঙ্গে বিয়ে দিলেন এক যুবতীর মৃতদেহের। তাঁদের ছেলের মৃত্যু হয়েছিল বছর তিনেক আগে। ছেলের আত্মার শান্তির জন্য তাই তাঁরা পাশের গ্রামের এক অবিবাহিত মেয়ের মৃতদেহের সঙ্গে বিয়ের আচার সম্পন্ন করালেন পুরোহিত ডেকে।
ভাবছেন, মেয়ের বাড়ির লোকেরা ব্যাপারটা মেনে নিল কেন? তাঁরাও যে চান মৃত্যুর পরে হলেও মেয়ের আইবুড়ো নাম খণ্ডাক! তা ছাড়া, শাংসির গ্রামাঞ্চলে অবিবাহিত মৃত মেয়ের অন্ত্যেষ্টির জন্য কবর পাওয়াও খুব সমস্যার! একে তো অনেক পয়সা খরচ করতে হয়। তার পরেও থাকে অন্য সমস্যা। চোরেরা মুনাফার জন্য কবর থেকে মৃতদেহ তুলে বিক্রি করে!
এতেই শেষ নয়। মৃতদের এই বিয়ের খরচ কিন্তু বিশাল! অনেক পরিবারই এমন বিয়ে সম্পন্ন করাতে গিয়ে সারা জীবন ডুবে থাকেন দেনায়!
সব মিলিয়ে এই প্রথা নিয়ে এখন জেরবার হয়ে আছে শাংসির গ্রামাঞ্চল। এক দিকে রয়েছে পরিবারের সদস্যদের জন্য মায়া, অন্য দিকে আর্থিক সঙ্কট।
দেখা যাক, কী ভাবে এই সমস্যার মোকাবিলা করে চিন!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement