২  ভাদ্র  ১৪২৯  শুক্রবার ১৯ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

গ্রিসে দাবানলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪, মধুচন্দ্রিমায় গিয়ে নিখোঁজ স্বামী

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 25, 2018 2:04 pm|    Updated: July 25, 2018 2:04 pm

Groom missing as newlyweds caught in Greece wildfire, toll rises

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভয়াবহ দাবানলের কবলে গ্রিস। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত মৃত বেড়ে ৭৪ হয়েছে বলে খবর। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়বে বলেই জানাচ্ছে উদ্ধারকারী দল। আহত ১৮৭ জন। আর এরই মধ্যে গ্রিসে মধুচন্দ্রিমায় গিয়ে দাবানলের শিকার এক নবদম্পতি। স্বামীর খোঁজ পাচ্ছেন না নববধূ।

রাজধানী এথেন্স থেকে ১৮ মাইল দূরে অবস্থিত ম্যাটি গ্রামের বনাঞ্চলে আগুন লাগে। প্রায় ১০০ কিলোমিটার এলাকায় আগুন ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় সময় সোমবার মধ্যরাত থেকেই শুরু হয় আগুন নেভানোর কাজ। পরিস্থিতি এতটাই ভয়ংকর হয়ে ওঠে যে আগুন নেভাতে আন্তর্জাতিক সাহায্য চায় গ্রিস সরকার। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কারণে ম্যাটি গ্রামে পর্যটকদের ভিড় লেগেই থাকে। দাবানলের জন্য এখনও কোনও পর্যটকরা ওই এলাকায় ফেঁসে রয়েছেন কিনা, তার খোঁজ চলছে। মৃতদের মধ্যে অধিকাংশের মৃত্যু ধোঁয়ার কারণে দমবন্ধ হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ২৩ জন শিশু-সহ ১৮৭ জন আহত হয়েছেন বলে খবর।

মঙ্গলবার রাত পর্যন্তও ধিকিধিকি আগুন জ্বলছিল। আগুন দেখে পর্যটকদের মধ্যে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। সমুদ্রপথে অনেক পর্যটকই পালাবার চেষ্টা করেন। সেখানে আবার বিপাকে পড়েন তাঁরা। তাঁদের উদ্ধার করা হয়েছে। হাজার হাজার মানুষ ইতিমধ্যেই গ্রাম ছেড়ে পালিয়েছেন। তবে পরিস্থিতি এমনই যে উদ্ধার করার পর তাঁদের নিরাপদ আশ্রয়ে রাখাও সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এদিকে অন্যান্য পর্যটকদের মতো আতঙ্কিত আইরিশ নবদম্পতি ম্যাটি থেকে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু সেই সময়ই ব্রায়ানকে হারিয়ে ফেলেন স্ত্রী জো হোলোহান। গত সপ্তাহেই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তাঁরা। আহত অবস্থায় জোকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত স্বামীকে খুঁজে পাননি তিনি। সোমবার দুপুর থেকেই নিখোঁজ স্বামী।

স্বামীকে খুঁজে পাচ্ছেন না স্ত্রী।

গ্রিসের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর কয়েকশো কর্মীকে আগুন নেভানোর কাজে নিযুক্ত করা হয়। আপৎকালীন পরিস্থিতির জন্য সরকারি সফর বাতিল করেন গ্রিসের প্রধানমন্ত্রী আলেক্সিস সিপ্রাস। মঙ্গলবার তিনি বলেন, ‘একটা অসম পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করছি আমরা। সমস্ত শক্তি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। আহতদের উপযুক্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আরও যা যা করা দরকার সব করব এই পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে।’ তিনদিনের জাতীয় শোকের পাশাপাশি অ্যাটিকায় জরুরি অবস্থাও ঘোষণা করা হয়েছে। বেশ কিছু হেল্পলাইন নম্বরও খুলে দেওয়া হয়েছে।

[নির্বাচন চলাকালীন বালোচিস্তানে ফিদায়েঁ হামলা, মৃত অন্তত ২৫]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে