২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিখ্যাত চিত্রশিল্পীদের শিল্প, তুলি, ক্যানভাস অনেক কিছুই নিলামে ওঠে। তবে, শিল্পীদের ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র কোথাও নিলামে উঠেছে কি না, তা মনে করতে হলে, বেশ বেগ পেতে হবে বইকি! এবার সেরকমই এক ঘটনা ঘটেছে। নিলামে বিকোল বিখ্যাত চিত্রশিল্পী ভ্যান গগের আগ্নেয়াস্ত্র। যা লিফঁসু রিভলবার নামেও পরিচিত। যেই রিভলবার আজও এক ইতিহাসের সাক্ষী বহন করে চলেছে। 

[আরও পড়ুন : হলিউড প্রাঙ্গণ থেকে চুরি গেল মেরিলিন মনরোর বিখ্যাত মূর্তি]

প্যারিসের এক নিলাম সংস্থার অনুমান ছিল গগের লিফঁসু রিভলবার অন্তত ৬০ হাজার ইউরো বা ৬৭ হাজার মার্কিন ডলারে বিকোতে পারে। তবে, বুধবার সেই আগ্নেয়াস্ত্র বিক্রি হল ১ লক্ষ ৮২ হাজার মার্কিন ডলারে।  শেষবার এই রিভলভারটি ব্যবহৃত হয়েছিল ১৮৯০ সালে। শিল্পী ভিনসেন্ট ভ্যান গগ নাকি ওই রিভলভার ব্যবহার করেই আত্মঘাতী হয়েছিলেন। প্যারিসের উত্তরাঞ্চলে একটি গ্রামের খেতের মধ্যিখানে পাওয়া গিয়েছিল গগের মৃতদেহ। সেখানেই উদ্ধার হয়েছিল ওই লিফঁসু রিভলবার। অন্তত এমনটাই দাবি শিল্প ঐতিহাসিকদের। তবে গগের মৃত্যু এবং এই রিভলবার নিয়ে অবশ্য দ্বিমত রয়েছে ঐতিহাসিকমহলের মধ্যে। অন্য আরেক মহলের অনুমান অবশ্য, গগ আত্মহত্যা করেননি। বরং, দুই দস্যি ছোকরার বন্দুক নিয়ে সংঘর্ষের জেরেই দুর্ঘটনাবশত গুলি লেগে যায় ভ্যান গগের। যার ফলে, মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন এই চিত্রশিল্পী। তবে দুর্ঘটনা হোক কিংবা আত্মহত্যা, গুলি যে একটি লিফঁসু রিভলবার থেকেই চলেছিল সেই বিষয়ে নিশ্চিত ঐতিহাসিকরা। কেন না ভ্যান গগের শরীর থেকে পাওয়া ওই রিভলবারেরই সমান ক্যালিবারের গুলির অংশ।

[আরও পড়ুন : রবীন্দ্রনাথের উক্তি ‘চুরি’, নেটদুনিয়ায় ফের হাসির খোরাক ইমরান খান]

তবে যে রিভলবার নিলামে উঠছে এবং যে রিভলবারের গুলি লেগে শিল্পী ভ্যান গগের মৃত্যু হয়েছিল, তা যে একই, তার প্রমাণ কী? এমন প্রশ্নই রাখা হয়েছিল প্যারিসের ওই নিলাম সংস্থার কাছে। তাঁরা জানিয়েছেন, এব্যাপারে নিশ্চিত হওয়ার কোনও উপায় নেই। তবে যে রিভলবারটি নিলামে উঠেছে, সেটি যে ৭৫ বছর ধরে মাটি চাপা ছিল, তার প্রমাণ মিলেছে। ১৯৬৫ সালে বন্দুকটি উদ্ধার করেন এক কৃষক। ৭৫ বছর পিছোলে ১৮৯০ সাল অর্থাৎ ভ্যান গগের মৃত্যুর বছরেই হিসেবটি পৌঁছাচ্ছে। ১৮৯০ সালের ঘটনাটির দিন ভ্যানগগ লিফঁসু্ রিভলবারটি ধার নিয়েছিলেন তাঁরই সরাইখানার মালিকের কাছ থেকে। ১৯৬৫ সালে তাই রিভলবারটি উদ্ধার করার পর তাঁর পরিবারকেই ফিরিয়ে দেওয়া হয়। এবার সরাইখানার মালিকের সেই উত্তরসূরীদের তরফেই রিভলবারটি নিলামে তোলা হচ্ছে। উল্লেখ্য, ভ্যান গগের আত্মহত্যা নিয়ে ধোঁয়াশা থাকলেও তা অবিশ্বাস্য নয়। আগেও ভ্যান গগ নিজের কান কেটে এক বারবণিতাকে উপহার দিয়েছিলেন। সেই ঘটনার দু’বছর পরই মৃত্যু হয় শিল্পীর।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং