১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কীভাবে ‘জেহাদের যুবরাজ’ হামজাকে গ্রাস করল মৃত্যু, রিপোর্টে ফাঁস তথ্য

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 2, 2019 11:38 am|    Updated: August 2, 2019 11:38 am

Hamza Bin Laden son of Osama 'killed in air strike'

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সদ্য প্রকাশ্যে এসেছে ‘জেহাদের যুবরাজ’ হামজা বিন লাদনের মৃত্যুর নিশ্চিত খবর৷ ওসামাপুত্রের মৃত্যুর খবরে দুনিয়াজুড়ে শুরু হয়েছিল তোলপাড়৷ তবে কীভাবে তার মৃত্যু হয়, তা নিয়ে ছিল ধোঁয়াশা৷ এবার ফাঁস হল সেই রহস্য৷ বিবিসি, ‘এনবিসি নিউজ’ থেকে শুরু করে ‘দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস’-সহ একাধিক প্রথম সারির সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, বিমান হানায় নিহত হয়েছে আল কায়দার তরুণ তুর্কি হামজা বিন লাদেন।

[আরও পড়ুন: বেজিংয়ের রেস্তরাঁ থেকে আরবি শব্দ ও ইসলামিক প্রতীক সরানোর নির্দেশ চিনের]

জানা গিয়েছে, হামজাকে খতম করতে টানা দু’বছর ধরে অভিযান চালানো হয়৷ এবং ওই অপারেশনে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছিল মার্কিন সেনা। তবে কোথায় এবং কবে হামজার মৃত্যু হয়েছে, সে সম্পর্কে স্পষ্ট কিছু জানায়নি সংবাদমাধ্যমগুলি। খবরের সূত্র হিসেবে তারা উল্লেখ করেছে মার্কিন প্রশাসনের বেশ কয়েকজন শীর্ষকর্তার বক্তব্য। ফলে হামজা মৃত্যুর খবরের বিশ্বাসযোগ্যতা রয়েছে বলে অনেকে মনে করছেন। যদিও এই বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ পেন্টাগন৷

সন্ত্রাসবাদ নিয়ে কাজ করা বিশ্লেষকদের অধিকাংশই মনে করছেন, মার্কিন ড্রোন হানায় মৃত্যু হয়েছে হামজার৷ বরাবরই হামজাকে আফগানিস্তান থেকে দুরে রেখেছিল ওসামা৷ হামজার জন্ম হয় সৌদি আরবে৷ সেখানেই বেশ কয়েকবছর কাটানোর পর আফগানিস্তানে আসে সে৷  অ্যাবোটাবাদে অপারেশন নেপচুনস স্পিয়ারে ওসামা নিকেশের আগেই ইরান চলে যায় হামজা৷ সেখানেই তাকে গৃহবন্দি করে রাখা হয়৷ মূলত, সুন্নি জঙ্গি সংগঠন আল কায়দাকে বাগে রাখতে ও শিয়া সংখ্যাগুরু ইরানে হামলা ঠেকাতে হামজাকে ঢালের মতোই ব্যবহার করে তেহরান৷ তবে কোনওভাবে আফগানিস্তানে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় লাদেনের ২৩ সন্তানের মধ্যে সবচেয়ে নজরকাড়া হামজা বিন লাদেন৷ পাক-আফগান সীমান্ত থেকেই আমেরিকার বিরুদ্ধে যুদ্ধের হুঙ্কার দেয় আল কায়দার পোস্টার বয়৷             

ওসামা বিন লাদেনের ২৩টি সন্তানের মধ্যে ১৫তম সন্তান ছিল হামজা। লাদেনের তৃতীয় স্ত্রী’র ছেলে ছিল সে। পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদের গোপন ডেরায় লাদেনকে খতম করার পর বেশ কিছু তথ্য, ভিডিও ফুটেজ ও বহু ছবি বাজেয়াপ্ত করেছিল মার্কিন সেনা। সেগুলি খতিয়ে দেখে মার্কিন তদন্তকারীদের মত ছিল, লাদেনের অত্যন্ত প্রিয় সন্তান ছিল হামজা। আল কায়দার পরবর্তী নেতা হিসেবেও হামজাকে তুলে ধরার বেশ কিছু প্রমাণ মিলেছিল লাদেনের ডায়েরি থেকে। বাবার ইচ্ছে মতোই ধীরে ধীরে আল কায়দার রাশ নিজের হাতে নিতেও শুরু করেছিল হামজা।

[আরও পড়ুন: মৃত্যুর ১২৭ বছর পর আজও ফরাসি কবি র‌্যাঁবোর সমাধিস্থলে আসে চিঠি]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে