BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Taliban Terror: কাপিসা প্রদেশে সালেহ-বাহিনীর প্রত্যাঘাতে কাঁপল তালিবান, মৃত বহু জঙ্গি

Published by: Paramita Paul |    Posted: August 29, 2021 9:00 am|    Updated: August 29, 2021 9:00 am

Heavy losses to Taliban in Kapisa as Amrullah Saleh's Afghan resistance counterattacks | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তালিবান জেহাদি গোষ্ঠীর কাছে ক্রমশ ‘চিনের প্রাচীর’ হয়ে উঠছে আমরুল্লাহ সালেহর বাহিনী। পঞ্জশিরের (Panjshir Province) পর এবার কাপিসা প্রদেশেও বড় ধাক্কা খেল তারা। একাধিক সংবাদ সংস্থা মারফত খবর, সালেহ বাহিনীর প্রত্যাঘাতে প্রাথমিকভাবে বিপর্যস্ত তালিবরা। ইতিমধ্যে বহু তালিব জেহাদির মৃত্যুর খবর মিলেছে।

১৫ আগস্টের পর থেকে কার্যত গোটা আফগানিস্তানের (Afghanistan) দখল নিয়েছে তালিবান। তবে গতবারের মতো এবার পঞ্জশিরে এখনও দখলদারির থাবা বসাতে পারেনি তারা। একদিকে আহমেদ মাসুদ তো অন্যদিকে আফগানিস্তানের প্রাক্তন ভাইস প্রেসিডেন্ট তথা বর্তমান ‘কার্যকরী প্রেসিডেন্ট’ আমরুল্লাহ সালেহের (Amrullah Saleh) বাহিনীর কাছে বারবার পর্যদুস্ত হতে হচ্ছে তাদের। প্রত্যাঘাত একপেশে সংঘর্ষের চেহারা বদলে দিচ্ছে মাঝেমধ্যেই।

[আরও পড়়ুন: হোয়াটসঅ্যাপে ফাঁদ পাতছে হ্যাকাররা! এই মেসেজে সাড়া দিলেই সর্বনাশ]

সংবাদ সংস্থার খবর অনুযায়ী, এবার কাপিসার (Kapisa Privince) সানজান এবং বাঘলানের খোস্ত ওয়া ফেরেং এলাকায় প্রত্যাঘাতের মুখে পড়তে হয়েছে তালিবদের। দুই বাহিনীর রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের জেরে প্রাথমিকভাবে বেকায়দায় জেহাদি গোষ্ঠী। ইতিমধ্যে বহু তালিবানের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। এদিকে এতদিন পঞ্জশিরে সংঘর্ষ বিরতি মানছিল তালিবানেরা। এদিকে সালেহে বাহিনীর পালটা জবাব দিতেই তালিবানেরা (Taliban Terror) সেই চুক্তি লঙ্ঘন করেছে বলে খবর। ফলে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে পঞ্জশিরও। তবে কাবুল বিমানবন্দরে ধারাবাহিক বিস্ফোরণের পর সালেহ বাহিনীর এই প্রত্যাঘাত যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

এদিকে এমন পরিস্থিতিতে তালিবানদের চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছেন আমরুল্লাহ সালেহ। টুইটারে তাঁর কড়া বার্তা, “সন্ত্রাসবাদের কাছে বিশ্ব যেন মাথা নত না করে। কাবুল বিমানবন্দর (Kabul Airport) যেন মানবতার হাড়িকাঠ হয়ে না ওঠে। নিজেদের উপর বিশ্বাস রাখুন। কারণ হেরে যাওয়া মানসিকতা সন্ত্রাসবাদীদের থেকেও ভয়ঙ্কর। মনের জোর হারাবেন না।” তাঁর এই বার্তা থেকে একটি বিষয় আ্রবার স্পষ্ট হয়ে গেল, সালেহ-মাসুদ বাহিনীর ‘বিনা যুদ্ধে নাহি দিব সূচাগ্র মেদিনী’ এই মানসিকতা এখনমও অটুট।

[আরও পড়়ুন: হিমাচলে হটপ্যান্টে ঋতুপর্ণা, ভিডিও নিয়ে শোরগোল নেটপাড়ায়]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে