BREAKING NEWS

১১ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

পাকিস্তানের গুরুদ্বার লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি মুসলিমদের, আতঙ্কে তীর্থযাত্রীরা

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 3, 2020 9:52 pm|    Updated: January 3, 2020 9:54 pm

Hundreds of people threw stone at Nankana Sahib in Pakistan.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানের নানকানা সাহিব গুরুদ্বার লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি। শিখ বিরোধী স্লোগান। শুক্রবার সন্ধেয় এই ভয়ানক পরিস্থিতি সম্মুখীন হলেন ভারতীয় তীর্থযাত্রী-সহ পাকিস্তানে বসবাসকারী শিখ সম্প্রদায়ের একাংশ ।সোশ্যাল মিডিয়ায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে সেই ভিডিও। ঘটনার কথা জানতে পেরেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য চেয়ে টুইট করেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। পরে এই হামলার তীব্র নিন্দা করে ভারত সরকার। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ।

এদিকে সাফাই গাইতে পালটা টুইট করেন পাক প্রধানমন্ত্রীও। তিনি একটি ভিডিও টুইট করেন। যেখানে দেখা যায়, পুলিশ মুসলিমদের মারধর করছে। সঙ্গে তিনি লেখেন, ভারতে সংখ্যালঘুদের উপর হামলা চলছে। কিন্তু পরে দেখা যায়, ২০১৩ সালের বাংলাদেশের ভিডিও ওটি। সমালোচনার মুখে পরে তড়িঘড়ি ভি্ডিওটি তিনি ডিলিট করে দেন।

[আরও পড়ুন : সোলেমানির মৃত্যুতে বদলার হুমকি খামেনেইর, যুদ্ধের মেঘ মধ্যপ্রাচ্যে]

জানা গিয়েছে, হঠাৎই পাকিস্তানের ওই গুরুদ্বার ঘিরে ফেলে একদল মুসলিম। এরপরই শুরু ইটবৃষ্টি। গুরুদ্বারের ভিতরে তখন কয়েকশো তীর্থযাত্রী। চলতে থাকে শিখ বিরোধী স্লোগানও। প্রাণ ভয়ে গুরুদ্বারের ভিতরে সেঁধিয়ে গিয়েছিলেন তীর্থযাত্রীরা। তারপরেও ক্ষোভের তীব্রতা কমেনি। কতক্ষণ পর তাঁরা সেখান থেকে উদ্ধার হয়, তা সঠিক জানা যায়নি। সংবাদ সংস্থা ANI সূত্রে খবর, গত বছর অগস্ট মাসে গুরুদ্বারের আক আধিকারিকের মেয়েকে তুলে নিয়ে যায় এক যুবক। পরে তাঁকে ধর্মান্তরিত করাও হয়েছিল। এ দিন সেই যুবকের পরিবারের নেতৃত্বেই এই হামলা হয়।

[আরও পড়ুন : দাবানলে মৃত্যু বাবার, অস্ট্রেলিয়ায় পিতৃহারা শিশুকে সর্বোচ্চ সম্মান দমকলের]

 এদিকে এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। ততক্ষনাৎ তিনি টুইট করে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সাহায্য প্রার্থনা করেন। টুইটার হ্যান্ডেলে তিনি লেখেন, গুরুদ্বারে আটকে থাকা তীর্থযাত্রীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করুন। ঐতিহাসিক তীর্থস্থানকে গুন্ডাদের হাত থেকে রক্ষা করুন।বিবৃতি জারি করে ঘটনার নিন্দা করেন কেন্দ্র সরকার। জানানো হয়, এই ধ্বংসাত্মক ঘটনার তীব্র নিন্দা করছে ভারত। এখনই শিখ সম্প্রদায়ের নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করুক পাকিস্তান সরকার।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে