৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাশিয়া সফরে গিয়ে চমক দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বৃহস্পতিবার মোদি ঘোষণা করেছেন, পূর্ব রাশিয়ার উন্নয়নের জন্য আনুমানিক সাত হাজার কোটি টাকার ঋণ দেবে ভারত সরকার। পঞ্চম ইস্টার্ন ইকনমিক ফোরামে এই ঘোষণা করে মোদি বলেন, প্রাকৃতিক সম্পদ ও খনিজ সম্পদে ভরপুর এই এলাকাটি উন্নয়নের জন্য আর্থিক সাহায্য দেবে ভারত। এতে উপকৃত হবে ভারতও। এখানকার বনজ ও খনিজ সম্পদ আমদানি করে নিজের দেশে বিভিন্ন শিল্পে তা ব্যবহার করতে পারবে ভারত।

[আরও পড়ুন: চাপ বাড়ল জাকির নায়েকের, মোদির প্রত্যর্পণের প্রস্তাবে সায় মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর]


মোদি বলেন, ‘অ্যাক্ট ইস্ট’ নীতির অংশ হিসেবেই রাশিয়ার উন্নতিতে সক্রিয় ভাবে অংশগ্রহণ করতে চায় ভারত। রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিনের প্রশাসনিক দক্ষতার প্রশংসাও শোনা গেল এ দিন তাঁর মুখে। রাশিয়ার উন্নয়নে পুতিনের ভূমিকার তারিফ করে তিনি বলেন, ‘‘পুতিন তুষারাবৃত রাশিয়াকে ফুলের বাগানে পরিণত করেছেন। সুন্দর ভবিষ্যতের পথপ্রদর্শক তিনি।’’ মোদি বলেন, ভারতের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক আজকের নয়। রাশিয়ার রাজধানী ভ্লাদিভস্তকে প্রথম কনস্যুলেট করেছিল ভারতই। অন্য সমস্ত দেশের উপর তদানীন্তন সোভিয়েত ইউনিয়ন নিষেধাজ্ঞা চাপালেও ভারতের জন্য ভ্লাদিভস্তকের দরজা সব সময় খোলা ছিল।

এদিন প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট জানান, ২০২৪ সালের মধ্যে ৫ লক্ষ কোটি ডলারের অর্থনীতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চায় ভারত। কিন্তু এই বিকাশ বিকাশ শুধু ভারতকেন্দ্রিক নয়। রাশিয়ার মতো মিত্রশক্তির বিকাশও সুনিশ্চিত করতে চান তিনি। সেই কারণেই পূর্ব রাশিয়ার উন্নয়নে ঋণ দিতে চায় ভারত। পঞ্চম ইস্টার্ন ইকনমিক ফোরামে প্রধান অতিথি ছিলেন নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রী পুতিনকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার সম্পর্কের টানাপোড়েন নয়াদিল্লি ও মস্কোর সম্পর্কে কোনও প্রভাব ফেলবে না। ইতিমধ্যেই দুই দেশের মধ্যে সম্পাদিত তেল, গ্যাস, প্রতিরক্ষা, মহাকাশ গবেষণা ও তথ্যপ্রযুক্তি চুক্তিগুলির কথাও উল্লেখ করেছেন নরেন্দ্র মোদি। বুধবারও বেশ কয়েকটি আর্থিক চুক্তি হয়েছে ভারত ও রাশিয়ার মধ্যে। রাশিয়ায় সফরের ঠাসা সফরসূচির মাঝেই জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে বৈঠক সারলেন মোদি।

[আরও পড়ুন: দেশবাসীর প্রবল চাপের মুখে হংকংয়ে প্রত্যাহার বিতর্কিত বন্দি প্রত্যর্পণ বিল]

বৈঠকের শেষে বিদেশ সচিব বিজয় গোখলে জানান, জাপানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুক্ত ভারতীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আফ্রিকায় ভারত-জাপান যৌথ প্রকল্পগুলির বিষয়েও আলোচনা করা হয়েছে এদিনের বৈঠকে। অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে ভারত-জাপান দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার ব্যাপারেও গুরুত্ব দেন দুই প্রধানমন্ত্রী। যদিও, বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে রাশিয়াকে এত বিপুল সহায়তার প্রয়োজনীয়তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং