BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

চাপের মুখে নতিস্বীকার পাকিস্তানের, কুলভূষণের সঙ্গে দেখা করলেন ভারতীয় কুটনীতিবিদরা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 16, 2020 4:41 pm|    Updated: July 16, 2020 7:09 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে চাপের মুখে নতিস্বীকার করল পাকিস্তান। নয়াদিল্লি ও আন্তর্জাতিক মঞ্চের চাপের মুখে আজই কুলভূষণ যাদবের সঙ্গে ভারতীয় কুটনীতিবিদের দেখা করার অনুমতি দেয় ইসলামাবাদ।

[আরও পড়ুন: কোনও শর্ত ছাড়াই কুলভূষণ যাদবকে ‘কটূনৈতিক রক্ষাকবচ’ দিতে হবে, পাকিস্তানকে কড়া বার্তা ভারতের]

জানা গিয়েছে, ভারতীয় দূতাবাস থেকে কুটনীতিবিদ গৌরব আলুওয়ালিয়া ও তাঁর সঙ্গী এদিন বেলা ৩টে নাগাদ কুলভূষণের সঙ্গে একটি অজ্ঞাত জায়গায় সাক্ষাৎ করেন। তবে বৈঠকের সময় নীতি লঙ্ঘন করে সেখানে উপস্থিতি ছিলেন পাক অধিকারিকরা। এই সাক্ষাতের কথা নিশ্চিত করেছেন ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকে মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব। ভারতীয় নৌসেনার প্রাক্তন কর্মীর সঙ্গে কুটনীতিবিদের একান্তে সাক্ষাৎ করতে দেয়নি পাকিস্তান। এনিয়ে দ্বিতীয়বার ভারতকে ‘কনসুলার অ্যাকসেস’ বা বন্দি কুলভূষণের সঙ্গে দেখা করার ও অনুমতি দিয়েছে পাকিস্তান। এর আগে পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রকের কর্তাদের সঙ্গে দেখা করার শর্ত নিয়ে ভারতীয় কুটনীতিবিদদের আলোচনা সম্পন্ন হয়। এর আগে জুলাই মাসের ২০ তারিখের মধ্যে ‘কনসুলার অ্যাকসেস’ দেওয়ার দাবি জানিয়েছিল ভারত।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই পাকিস্তান দাবি করেছিল, মৃত্যুদণ্ডের পুনর্বিবেচনা চান না ভারতীয় নৌসেনার প্রাক্তন কর্মী কুলভূষণ যাদব। নিজের আইনি অধিকার প্রয়োগ করে আদালতে সাজা পুনর্বিবেচনার আরজি দাখিল করতে রাজি হননি তিনি। পাকিস্তানের অ্যাডিশনাল অ্যাটর্নি জেনারেল জানান, জুনের ১৭ তারিখ সাজা পুনর্বিবেচনার আরজি জানানোর কথা বলা হয়েছিল কুলভূষণ জাদবকে। তবে নিজের আইনি অধিকার প্রয়োগ করে কোনও আপিল করা থেকে বিরত থাকেন তিনি। এই মর্মে আগে দাখিল করা ক্ষমা প্রার্থনার আপিলের দিকেই তাকিয়ে আছেন তিনি। উল্লেখ্য, পাক সেনার দাবি, দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর ২০১৭ সালে পাক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার কাছে মৃত্যুদণ্ড রদ করার আবেদন জানিয়ে আপিল করেছিলেন কুলভূষণ।

আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুমুল সমালোচনার পর গত বছর পাকিস্তান (Pakistan) জানিয়েছিল, সেনা আইনে সংশোধন এনে কুলভূষণ যাদবকে (Kulbhushan Jadhav) নাগরিক আদালতে আবেদন করার সুযোগ দেবে। যদিও সমস্তটাই যে মিথ্যা আশ্বাস তা এদিন ইসলামাবাদের দাবিতে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে। ভারতীয় নৌসেনার প্রাক্তন কর্মী, ৪৯ বছরের কুলভূষণ যাদবকে ২০১৭ সালে গুপ্তচরবৃত্তি ও সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড দেয় পাকিস্তানের আদালত। আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালত (ICJ) গত বছরের জুলাই মাসে ভারতকে কনস্যুলার অ্যাকসেস দেয় এবং কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ডের রায়কে পুনর্বিবেচনা করার কথা বলে।

[আরও পড়ুন: কুলভূষণের মতোই ৪ ভারতীয়কে জঙ্গি তকমা দেওয়ার মরিয়া চেষ্টা পাকিস্তানের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement