BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

কাজ থেকে তাড়ানোর প্রতিশোধ! পাকিস্তানি যুবকের হাতে খুন ভারতীয় দম্পতি

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 24, 2020 2:43 pm|    Updated: June 24, 2020 2:59 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  দুবাইতে (Dubai) ভারতীয় দম্পতি খুন করে কাঠগড়ায় পাকিস্তানি যুবক। খুন করে পালানোর সময় ওই দম্পতির কিশোরী মেয়ে অভিযুক্তকে দেখে ফেলে। সেই ‘অপরাধ’এ কিশোরীকেও কোপায় ওই যুবক বলে অভিযোগ। যদিও বরাত জোড়ে মেয়েটি বেঁচে গিয়েছে। কিন্তু কী কারণে এই ঘটনা ঘটল তা নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে।

দুবাইয়ের দূতাবাস সূত্রে খবর, গুজরাটের (Gujrat) আদি বাসিন্দা ছিল ওই পরিবার। পরিবারের কর্তা ছিলেন হিরেন আধিয়া। তিনি শারজার (Sharja) এক তেল ও গ্যাস সংস্থার উচ্চপদে কর্মরত ছিলেন। বছর দুয়েক আগে গুজরাট থেকে তাঁর স্ত্রী ভিধি আধিয়া ও দুই ছেলে-মেয়ে দুবাইতে চলে আসেন। ছেলের বয়স ১৩ বছর ও মেয়ের বয়স ১৮ বছর। প্রতিবেশীরা জানান, স্বচ্ছল পরিবার ছিল। বাড়িতেঅ নগদ ও গয়না থাকত বলে অনেকেই জানত। সেই সুযোগ নেয় ওই অভিযুক্ত। পুলিশ সূত্রে খবর, ১৮ জুন আধিয়া ভিলায় ডাকাতি করতে আসে ওই যুবক। সেই সময় বাড়িতেই ছিলেন হিরেন ও  ভিধি। বাধা দেওয়ায় তাদের খুন করা হয়।  খুনিকে দেখে ফেলায় তাঁদের মেয়েকেও খুনের চেষ্টা করা হয়। আর গোটা ঘটনায় কাঠগড়ায় এক পাকিস্তানি (Pakistani) যুবক।

[আরও পড়ুন : নিয়মভঙ্গের অভিযোগ, আমেরিকায় ভারতের বিশেষ বিমান চলাচলে বিধিনিষেধ ট্রাম্পের]

পুলিশ সূত্রে খবর, বছর দুয়েক আগে বাড়ি সংস্কার করা হয়েছিল। সেই সময় মিস্ত্রিদের দলে ছিল ওই যুবক। পরে কাজ হারিয়ে বেকার হয়ে যায় সে। আধিয়া পরিবারের বাড়িতে ডাকাতি করার ছক কষে সে। সেই সময় আধিয়া পরিবার বাধা দেওয়ায় তাদের খুন করা হয়। তবে সূত্র মারফত অন্য এক খবর মিলেছে, আধিয়া পরিবারের কাছে কাজ করল ওই যুবক। কিন্তু তাকে কাজ থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হ৭য়। সেই প্রতিশোধ তুলতেই এই ঘটনা ঘটিয়েছে সে। অভিযুক্তকে হেফাজতে তদন্ত চালাচ্ছে পুলিশ।  

[আরও পড়ুন : ছ`দশক ধরে নেপালের গ্রাম দখল চিনের, প্রতিবাদের বদলে চুপ কাঠমান্ডু]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement