BREAKING NEWS

২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনা আতঙ্কে ত্রস্ত চিন, ভারতীয় দূতাবাসে বাতিল সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠান

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: January 25, 2020 11:36 am|    Updated: January 25, 2020 4:52 pm

Indian embassy in China cancels Republic Day celebrations

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মারণ করোনা ভাইরাসে আতঙ্কিত চিন। এই ভয়াবহ  রোগে এপর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন ৪১ জন। এহেন পরিস্থিতিতে বেজিংয়ে ভারতীয় দূতাবাসে সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে। 

ভারতীয় দূতাবাস জানিয়েছে, করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই সমস্ত জনসভা ও অনুষ্ঠানে নিষেধাজ্ঞা জারি করছে চিন সরকার। সংক্রমণ যাতে আরও না ছড়ায় তার জন্য ইউহান-সহ ১৩টি প্রদেশকে কার্যত বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। এহেন পরিস্থিতিতে সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠান বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এদিকে, বৃহস্পতিবার দূতাবাসে একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়ে। সেখানে অতিথি হিসেব হাজির ছিলেন চিনের উপবিদেশমন্ত্রী এবং ভারতে নিযুক্ত প্রাক্তন রাষ্ট্রদূত লুও ঝাওহুই। এছাড়া, সেদেশের বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ আধিকারিক ও বেজিংয়ে কর্মরত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিবিদরা উপস্থিত ছিলেন। এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত বিক্রম মিশ্রি জানান, ২০২০ সাল দু’দেশের দ্বিপাক্ষিক কূটনৈতিক সম্পর্ককে আরও শক্তিশালী করার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ          

শেষ পাওয়া খবরের মতে, করোনা ভাইরাসের হানায় এখনও পর্যন্ত ইউহান প্রদেশের এক চিকিৎসক-সহ মৃত্যু হয়েছে ৪১ জনের। নতুন করে ১০০০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। করোনা ভাইরাস যাতে ছড়িয়ে পড়তে না পারে তা নিশ্চিত করতে ইউহান-সহ ১৩টি শহরকে বাকি দেশের থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে। এই তালিকায় রয়েছে হুয়াংগাং, এজহউ, চিবি, জিআনতাও, কিউয়ানজিয়াং মতো শহরও। এদিকে, ফ্রান্সেও থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। রাজধানী প্যারিস-সহ প্রান্তিক এলাকার তিনজনের দেহে এই রোগের জীবাণু মিলেছে বলে খবর। ইতিমধ্যে তাদের চিকিৎসা শুরু হয়েছে। জানা গিয়েছে, তিনজনই সম্প্রতি চিন থেকে ফিরেছিলেন। প্রসঙ্গত, ইউরোপের কোনও দেশে এই প্রথম করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঘটনা সামনে এল। ফলে তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

রোগের হাত থেকে বাঁচতে চিন, হংকং থেকে ভারতে ফিরেছেন প্রায় ২০ হাজার নাগরিক। দেশের বিভিন্ন বিমানবন্দরে তাঁদের থার্মাল টেস্ট করা হচ্ছে। কারোর মধ্যে সক্রমণের সামান্য আঁচ পেলেও তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সংক্রমণ না থাকলেও চিন ফেরত ব্যক্তিরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। 

[আরও পড়ুন: চিনা ‘করোনা ভাইরাস’-এর আতঙ্ক কলকাতাতেও, বিমানবন্দরে জারি সতর্কতা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement