২৬ কার্তিক  ১৪২৬  বুধবার ১৩ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রাজ কুমার: বৌদ্ধস্তূপের মাথায় উঠে ফটোশুট করাতে গিয়ে বিপাকে ভারতীয় পর্যটক। ইতিমধ্যেই পুলিশ তাকে আটক করেছে। ভারতীয় যুবকের ছবি বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। তারপর থেকে ক্ষোভে ফুঁসছেন বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা। এভাবে ফটোশুট করে বৌদ্ধস্তূপের মর্যাদা ক্ষুন্ন করা হয়েছে বলেই দাবি তাঁদের।

অভিজিৎ রতন হাজারে নামে ওই যুবক মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা। বাইকে চড়ে অন্তত ১৫জন সঙ্গীর সঙ্গে ভুটানে এসেছিল সে। দোচুলা পাসের কাছে বিশ্রাম নেওয়ার কথা ছিল তার। ঠিক সেই সময় ওই পর্যটক জুতো পরে ভুটানিদের পবিত্র বৌদ্ধস্তূপের এক্কেবারে ছাদে উঠে পড়ে। সেখানে বিভিন্ন পোজ দিয়ে ছবিও তোলে রতন। ওই যুবকের ছবি টুইটারে ছড়িয়ে পড়ে। তারপর থেকে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা ক্ষোভে ফুঁসছেন। ওই যুবক ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দিয়েছে বলেই অভিযোগ তাঁদের। কেউ কেউ বলছেন, ছবি তোলা না পরিকল্পনামাফিক বৌদ্ধ স্তূপকে অসম্মান করার জন্য জুতো পায়ে সেখানে উঠেছিল অভিজিৎ।

[আরও পড়ুন: ভারতে প্রতি বছর অপুষ্টির বলি ৬৯% শিশু, চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট ইউনিসেফের]

এই অভিযোগে রয়াল ভুটান পুলিশ ভারতীয় ওই পর্যটককে আটক করেছিল। সূত্রের খবর, একটি হোটেলে আটকে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাকে। লিখিতভাবে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছে ওই যুবক। সে জানিয়েছে, “শুধুমাত্র প্রকৃতির টানে বাইকে চড়ে ভুটানে বেড়াতে গিয়েছিলাম। দোচুলা পার্কে কিছুক্ষণ বিশ্রাম নেওয়া হয়। তখন আশেপাশের দৃশ্য দেখে আমি মুগ্ধ হয়ে যাই। কিছু বুঝে ওঠার আগে আমি বৌদ্ধস্তূপের ছাদে উঠে পরি। যদি বুঝতাম ওটা বৌদ্ধস্তূপ, তাহলে জুতো পায়ে কোনওভাবেই উঠতাম না। ফটোশুটও করতাম না। তাহলে তার আশেপাশে দাঁড়িয়েই ছবি তুলতাম। ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার কোনও উদ্দেশ্য ছিল না আমার। আমি ক্ষমা চাইছি।” লিখিত মুচলেকা জমা দেওয়ার পরই পুলিশ অভিজিৎকে ছেড়ে দেয়। তবে ভারতীয় পর্যটকের এহেন আচরণকে মোটেও ভাল চোখে দেখছেন না ভুটানের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা। অভিজিৎ যে কাজ করেছে, তার কোনও ক্ষমা হয় না বলেই দাবি তাঁদের।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং