BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিমানবন্দরেই প্রসব, ভারতীয় মহিলাকে সাহায্যের নজির রাখলেন দুবাইয়ের মহিলা পুলিশ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 21, 2019 2:36 pm|    Updated: April 21, 2019 9:12 pm

An Images

ছবিটি প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  বিমানবন্দরেই  লেবার পেন ওঠে৷ কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় দুবাইয়ের বিমানবন্দরেই সন্তান প্রসব করলেন এক ভারতীয় মহিলা। তাঁর সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন বিমানবন্দরে কর্তব্যরত এক মহিলা পুলিশ কর্মী। জানা গিয়েছে, জন্মের পরই অসুস্থ হয়ে পড়ে নবজাতক। বর্তমানে মা ও সন্তান দুজনেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে ভারতীয় বংশোদ্ভুত ওই মহিলার পরিবারের কোনও খোঁজ পায়নি পুলিশ। 

[আরও পড়ুন: প্রচার নিষিদ্ধ হলে ভোটদান বাধ্যতামূলক, নচেৎ জরিমানা গুজরাটের গ্রামে]

স্থানীয় একটি সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০ এপ্রিল দুবাই বিমানবন্দরের ২ নম্বর টার্মিনালে অপেক্ষা করছিলেন ভারতীয় ওই মহিলা। তাঁর সঙ্গে কেউ ছিলেন না। সেই সময় হঠাৎই প্রসব যন্ত্রণা ওঠে তাঁর। ২ নম্বর টার্মিনালেই যন্ত্রণায় ছটফট করতে শুরু করেন ওই মহিলা। আচমকা তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ায় হতচকিত হয়ে পড়েন অন্যান্য যাত্রীরাও। মুহূর্তের মধ্যে ভিড় জমে যায় ওই এলাকায়। জানা গিয়েছে, সেই সময় টার্মিনাল ২-এ মানুষের জটলা নজরে পড়ে বিমানবন্দরের এক মহিলা পুলিশকর্মী৷ কোনও সমস্যা হয়েছে অনুমান করে ছুটে যান তিনি। এরপরই ঘটনাস্থলকে ওই মহিলাকে উদ্ধার করে বিমানবন্দরের জরুরিভিত্তিক কাজে ব্যবহৃত একটি ঘরে নিয়ে যান। সূত্রের খবর, সেই ঘরেই সন্তানের জন্ম দেন ওই ভারতীয় মহিলা।

[আরও পড়ুন:  ‘আজাদির লড়াইয়ে শহিদ আদিল’, পুলওয়ামা কাণ্ডে অনুতপ্ত নয় জঙ্গির পরিবার]

জানা গিয়েছে, জন্মের পর শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে পারছিল না নবজাতক। সেই কারণে,  তড়িঘড়ি মা ও সন্তানকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। আপাতত তাঁরা দু’জনেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পুলিশকর্মীর এই ভূমিকায় খুশি দুবাই পুলিশ। ইতিমধ্যেই, যাত্রীর সুবিধার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করার জন্য দুবাই পুলিশের বিমানবন্দর নিরাপত্তা বিষয়ক শাখার প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলি আতিক বিন লাহেজও পুরস্কৃত করেছেন ওই মহিলা পুলিশকর্মীকে। তাঁর মানবিকতা বোধের প্রশংসা করেছেন সকলেই। সেইসঙ্গে তাঁর পেশার প্রতি তার কর্তব্যবোধ দেখে খুশি তাঁর সহকর্মীরা। শেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, সুস্থ রয়েছেন মা ও নবজাতক। মহিলার পরিবারের খোঁজে তদন্ত শুরু করেছে দুবাই পুলিশ। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement