BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সংকটের সুযোগ নিয়ে এলটিটিই হানার ছক লঙ্কায়! কী বলছে গোয়েন্দা রিপোর্ট?

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: May 16, 2022 11:59 am|    Updated: May 16, 2022 12:03 pm

Intelligence report says LTTE could exploit Sri Lanka's current economical crisis | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকট। আর তারই প্রতিবাদে দেশ জুড়ে গণবিক্ষোভ। শ্রীলঙ্কায় (Srilanka) ঠিক এই পরিস্থিতিটাকেই নাকি কাজে লাগাতে ময়দানে নেমে পড়েছে দেশটির এলটিটিই (LTTE) গোষ্ঠীর তামিল বিদ্রোহীরা। তারা নিজেদের নতুন করে সাজিয়ে নিতে শুরু করেছে। নতুন করে শ্রীলঙ্কায় হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে তারা। এমনটাই নাকি সম্প্রতি দাবি করেছেন ভারতের গোয়েন্দারা। আর এই তথ্য জানিয়ে সতর্কও করা হয়েছে শ্রীলঙ্কার সেনাকে। তবে বিষয়টিকে বিশেষ গুরুত্ব দিতে রাজি হয়নি শ্রীলঙ্কা। শ্রীলঙ্কার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ভারতীয় গোয়েন্দাদের এই দাবি খারিজ করে দিয়েছে।

উল্লেখ্য, শ্রীলঙ্কার উত্তরাঞ্চলে পৃথক স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে কয়েক দশক ধরে লড়াই করা এলটিটিই তামিল টাইগার্স (Tamil Tigers) নামেও পরিচিত। এলটিটিইর নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ভেলুপিল্লাই প্রভাকরণ। ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কার সরকার এলটিটিইর বিরুদ্ধে চূড়ান্ত অভিযান চালিয়ে তাদের পরাজিত করে। ওই অভিযানে নিহত হন প্রভাকরণ। অভিযোগ ওঠে, ওই অভিযানে ব্যাপকভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন ও যুদ্ধাপরাধের ঘটনা ঘটে। এর নেতৃত্বে ছিলেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে।

[আরও পড়ুন: ক্যালিফোর্নিয়ার চার্চে ঢুকে গুলি এশীয় বংশোদ্ভুত বন্দুকবাজের, নিহত ১, জখম বেশ কয়েকজন]

সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমে টাইগারদের নতুন তৎপরতা নিয়ে বিষয়টি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর শ্রীলঙ্কার সংবাদমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোয় খবরটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। এমন পরিস্থিতিতে গতকাল শ্রীলঙ্কার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, “এই প্রতিবেদন সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এমন নিরাপত্তা হুমকি নিয়ে আমরা কোনও গোয়েন্দা সতর্কতা পাইনি।”

তামিল প্রগতিশীল জোটের নেতা ও কলম্বোর বিরোধী দলের এমপি মানো গানেসান বলেন, “এলটিটিই পুনরায় সংঘবদ্ধ হওয়ার খবর শ্রীলঙ্কার সামাজিক প্রেক্ষাপটের জন্য ক্ষতিকর। কারণ, শ্রীলঙ্কায় জাতিগত সম্পর্ক উন্নত হচ্ছে।” তিনি বলেন, “এই সংবাদ কতটা সত্য? গোয়েন্দা সূত্রের উৎস কী? ভারতীয় নাকি বিদেশি? ভারতীয় গণমাধ্যম ও কর্তৃপক্ষের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।”

[আরও পড়ুন: ইউক্রেন যুদ্ধে নাজেহাল রাশিয়া, চিন্তা বাড়িয়ে ন্যাটোয় যোগ দেওয়ার ঘোষণা ফিনল্যান্ডের]

উল্লেখ্য, গতকাল দ্বীপরাষ্ট্রের সাংসদ ও বিরোধী নেতা হর্ষ ডিসিলভা দাবি করেন, শ্রীলঙ্কায় (Sri Lanka) এখন যা পরিস্থিতি, ১৯৯১ সালে তেমনই অবস্থা হয়েছিল ভারতের। তিনি আরও বলেন, ভারতের মতো শ্রীলঙ্কাও এই বিপদ কাটিয়ে উঠবে। তবে সেজন্য সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলিকে একজোট হতে হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে