Advertisement
Advertisement
Iran

ইরানের হাতে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’, রেহাই পাবে না আমেরিকার ‘অদৃশ্য’ যুদ্ধবিমানও!

ইরানের নয়া হাতিয়ারে বেকায়দায় পড়বে আমেরিকা?

Iran unveils new weapon system to take US fighter jets
Published by: Suchinta Pal Chowdhury
  • Posted:April 24, 2024 5:17 pm
  • Updated:April 24, 2024 6:28 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমেরিকাকে বেকায়দায় ফেলতে নতুন হাতিয়ার তৈরি করছে ইরান! জানা গিয়েছে, তেহরানের হাতে নাকি এমন সমরাস্ত্র চলে এসেছে যার আঘাত এড়াতে পারবে না মার্কিন বায়ুসেনার অত্যাধুনিক স্টেলথ যুদ্ধবিমানও। নতুন এই হাতিয়ারের নাম বাভার- ৩৭৩। 

কী এই বাভার- ৩৭৩? নতুন এই হাতিয়ার হল ইরানের এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম। শত্রুর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাতে ২০১৯ সালে অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি এই বাভার ইরানের সেনার হাতে এসেছিল। সমর বিশেষজ্ঞদের মতে, শক্তিশালী এই বায়ু প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার কার্যক্ষমতা আমেরিকার প্যাট্রিয়ট মিসাইল সিস্টেম বা রাশিয়ার এস- ৩০০ মিসাইল সিস্টেমের থেকে কোনও অংশে কম নয়। এবার এই বায়ু প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকেই আরও উন্নত ও ঘাতক করে তুলেছে তেহরান।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘ভারতে অবিশ্বাস্য কাজ করছেন মোদি’, ভোটের মাঝে ঢালাও প্রশংসা জেপিমর্গানের CEO-র]

গত ১৭ এপ্রিল মহড়া করে বাভারের নতুন সংস্করণ প্রকাশ্যে আনে ইরানি সেনা। তাদের দাবি ১৮৬ মাইল পর্যন্ত আঘাত হানতে সক্ষম বাভার। শুধু তাই নয়, ৭৫ মাইল উচ্চতায় প্রতিপক্ষের বিমান বা ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস করতে পারে এই এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম। এমনকি ইরানের আধিকারিকরা এও দাবি করেছেন, মার্কিন বায়ুসেনার এফ-৩৫ ও এফ-২২ স্টেলথ যুদ্ধবিমানকেও খুঁজে বের করে নিশানা করতে পারে বাভার- ৩৭৩। এটিকে আরও উন্নত করার জন্য এখনও পরীক্ষানিরিক্ষা চালানো হচ্ছে।

Advertisement

বলে রাখা ভালো, মার্কিন স্টেলথ যুদ্ধবিমান কার্যত ‘অদৃশ্য’। শত্রুপক্ষের রাডারে তা ধরা পড়ে না। ফলে ফাইটার জেটগুলোর আঘাত প্রতিরোধ জন্য সেগুলোকে শনাক্ত করা যায় না। বিশেষজ্ঞদের মতে, এবার আমেরিকার এই অত্যাধুনিক হাতিয়ারের আঘাত প্রতিরোধ করতে বাভার এয়ার ডিফেন্স সিস্টেমকে আরও শক্তিশালী করেছে ইসলামিক দেশটি। 

উল্লেখ্য, হামাস-ইজরায়েল সংঘাতের মাঝেই মধ্যপ্রাচ্যে ফের ঘনিয়েছে যুদ্ধের মেঘ। এবার ইহুদি দেশটির সঙ্গে লড়াইয়ে নেমেছে তেহরান। আক্রমণ পালটা আক্রমণে দুদেশের মধ্যেই সংঘাত তীব্র হচ্ছে। ইজরায়েলে মিসাইল ছোড়ার পরই তেহরানকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে আমেরিকা। দুদেশ সরাসরি যুদ্ধ শুরু করলে তেল আভিভকে সবরকম সাহায্য করার আশ্বাস দিয়েছে ওয়াশিংটন। ইতিমধ্যেই পারস্য উপসাগরে রণতরী পাঠিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ফলে ইজরায়েলে হামলা করতে গেলে ইরানকে মোকাবিলা করতে হবে মার্কিন ফৌজের। মনে করা হচ্ছে, ইজরায়েলের পাশাপাশি আমেরিকাকে নিশানায় রেখেই বাভার- ৩৭৩-এর মতো অস্ত্র তৈরি করছে ইরান।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ