২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২০১৮ সালে ভারতে ভয়াবহ নাশকতা ঘটানোর ছক কষেছিল ইসলামিক স্টেট খোরাসান গ্রুপ (আইএস-কে)। তবে উদ্দেশ্য ব্যর্থ হয় দক্ষিণ এশিয়ায় সক্রিয় এই সংগঠনটির। মঙ্গলবার মার্কিন সেনেটে এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন ন্যাশনাল কাউন্টার টেররিজম সেন্টার-এর ভারপ্রাপ্ত ডিরেক্টর রাসেল ট্র্যাভার্স।

সেনেটে ট্র্যাভার্স জানান, বিশ্বজুড়ে আইএস-এর যে সব শাখা ছড়িয়ে রয়েছে, তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিপজ্জনক খোরাসন। আফগানিস্তান-সহ এবার পার্শ্ববর্তী দেশ যেমন ভারতেও আত্মঘাতী হামলা চালানোর জন্য সক্রিয় হয়ে উঠেছে এই দলটি। বেশ কয়েক বার হামলা চালানোর চেষ্টাও করেছে তারা। এ কথা বলতে গিয়েই ভারতে হামলার প্রসঙ্গটি তুলে ট্র্যাভার্স বলেন, “গত বছরে ভারতে আত্মঘাতী হামলা চালানোর চেষ্টা করেছিল খোরাসান গ্রুপ। কিন্তু তাদের সে চেষ্টা ব্যর্থ হয়।” এর আগেও সেনেটে ট্র্যাভার্স জানিয়েছিলেন, বিশ্বজুড়ে আইএস-এর ২০টি শাখা সংগঠন রয়েছে। ৯/১১-র পর থেকে জঙ্গি দলে নাম লেখানোর প্রবণতা বিস্তর বেড়েছে। ওই হামলার পর বাইরের জঙ্গিগোষ্ঠীগুলির উপর নজর রাখা শুরু করলেও ঘরের মধ্যেই যে ধীরে ধীরে জঙ্গি বেড়ে উঠেছে সেটা খেয়ালই করা হয়নি। ফলে ৯/১১-এর ১৮ বছর পরেও আমেরিকাতেই বেড়ে ওঠা জঙ্গির সামনাসামনি হতে হচ্ছে দেশকে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে স্টকহমে ভয়াবহ হামলা চালিয়েছিল ইসলামিক স্টেট খোরাসান গ্রুপ। সেই হামলায় পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছিল। তারপর আমেরিকায় হামলা চালানোর চেষ্টা করলেও নাশকতার ওই পরিকল্পনা সফল হয়নি। বিশ্লেষকরা মনে করছেন, আফগানিস্তানে ঘাঁটি জমনোর পর, এবার ভারত-পাকিস্তান-বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কাতেও শিকড় মজবুত করার চেষ্টা করছে জঙ্গি দলটি। বাগদাদি খতম হলেও নয়া প্রধানের নির্দেশে নিজেদের অস্তিত্ব ও শক্তি প্রদর্শন করতে ফের হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে তারা।

[আরও পড়ুন: সিরিয়ায় তুর্কি বাহিনীর অভিযান, গোপন ডেরা থেকে গ্রেপ্তার বাগদাদির বোন]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং