BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পাঠ্যবই থেকে এবার বাদ পড়লেন রবীন্দ্রনাথ, শরৎচন্দ্র!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 6, 2017 7:13 am|    Updated: February 6, 2017 11:10 am

Islamisation of education in Bangladesh, Tagore, Saratchandra deleted from text books

সংবাদ প্রতিদিনি ডিজিটাল ডেস্ক: তাঁর গান দেশের জাতীয় সংগীত৷ অথচ স্কুলপাঠ্যে তাঁর আর জায়গা হল না৷ বাংলাদেশের পাঠ্যক্রম থেকে বাদ পড়লেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর৷ তবে তিনি একা নন৷ তাঁর সঙ্গে আছেন শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়, উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরীর মতো প্রখ্যাত সাহিত্যিকরাও৷ নতুন যে বই বিতরণ করা হয়েছে তাতে এঁদের লেখা মোট ১৭টি কবিতা গল্প-বাদ পড়েছে বলেই জানা যাচ্ছে৷

(এবার আন্দামানে চালু হচ্ছে রেল পরিষেবা)

জানা যাচ্ছে, রবীন্দ্রনাথের ‘আজি বাংলাদেশের হৃদয় হতে’ কবিতাটি বাদ দেওয়া হয়েছে স্কুলপাঠ্য থেকে৷ অথচ আপামর বাংলাদেশিরা ভালবাসেন এ কবিতা৷ অত্যন্ত সম্মান ও শ্রদ্ধার সঙ্গেই তাঁরা এ কবিতা উচ্চারণ করেন৷ বাদ পড়েছে শরৎচন্দ্রের ছোটগল্প লালু, সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়ের ভ্রমণকাহিনী, উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরীর ছোটদের রামায়ণ প্রভৃতি অংশও৷ বাদ গিয়েছে সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের বিখ্যাত ‘সাঁকোটা দুলছে’ কবিতাটিও৷ কিন্তু কেন এই সিদ্ধান্ত? সরকারি তরফে এর কোনও ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি৷ সূত্রের খবর, এর আগে সে দেশের শিক্ষামন্ত্রক যখন পাঠ্যক্রম তৈরির প্রস্তুতি নিচ্ছিল, তখন কয়েকটি রক্ষণশীল ইসলামিক সংগঠন কিছু বদলের সুপারিশ করে৷

(রণক্ষেত্র গুজরাটের পারুল বিশ্ববিদ্যালয়, আহত ২০ পড়ুয়া)

কিছু কিছু কবিতা ও গদ্যকে নাস্তিকতার প্রচার বলে মনে হয়েছে তাঁদের৷ অর্থাৎ তা পড়লে পড়ুয়াদের মনে ঈশ্বর আছেন এই বিশ্বাস নাও জন্মাতে পারে৷ আর তাই সেই লেখাগুলি বাদ দেওয়ার দাবি তুলেছিল সংগঠনগুলি৷ এরপরই নতুন বই বিতরণ করা হলে দেখা যায়, বেশ কিছু গদ্য ও কবিতা নেই৷ স্বাভাবিকভাবেই কট্টরপন্থী সংগঠনগুলির চাপেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে৷ যদিও কূটনীতিকদের একাংশ ঘটনাটিকে রুটিন বদল বলেই চালাচ্ছেন৷ তবে রবীন্দ্রনাথ বা শরৎচন্দ্রের লেখা যে নাস্তিকতার অজুহাতে বাদ পড়তে পারে, এটা ভেবেই বিস্মিত দু’দেশের সাহিত্যিকদের অনেকেই৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে