২৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বুধবার ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ‘ইসলামিক জেহাদ’-এর প্রধানকে খতম করল ইজরায়েল। গত মঙ্গলবার স্বায়ত্বশাসিত গাজা স্ট্রিপে সার্জিকাল স্ট্রাইক চালায় ইজরায়েলের বায়ুসেনা। শেজাইয়া অঞ্চলে পরপর বোমাবর্ষণ করে ইজরায়েলের এফ-১৬ বিমান। বিস্ফোরণে উড়ে যায় ওই জঙ্গিনেতার বাড়ি।

ইজরায়েলের সেনা জানিয়েছে, ভয়াবহ জঙ্গি হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল ‘ইসলামিক জেহাদ’-এর প্রধান আবু আল-আটা। তাই আক্রমণ রুখতে আগেভাগেই ওই জঙ্গিনেতার উপর হামলা চালানো হয়েছে। গাজা প্রশাসন সূত্রে খবর, ইজরায়েলী বোমার আঘাতে সম্পূর্ণভাবে ভেঙে পড়েছে আবু আল-আটার বাড়ি। ওই হামলায় ইসলামিক জেহাদ প্রধানের স্ত্রীও নিহত হয়েছে। এদিকে, মঙ্গলবার থেকে লাগাতার মূল ইজরায়েলী ভূখণ্ডে রকেট হামলা চালিয়ে যাচ্ছে জঙ্গি সংগঠনটি। ইতিমধ্যেই গাজা থেকে মধ্য ও দক্ষিণ ইজরায়েলের একাধিক শহরে কয়েকশো রকেট ছুঁড়েছে ইসলামিক জেহাদ। হামলায় আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন সাধারণ মানুষ। তবে, ইজরায়েলের ‘আয়রন ডোম’ মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম বেশিরভাগ রকেটকেই মাঝ আকাশে ধংস করে দিয়েছে। ইজরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকে জানানো হয়েছে, বুধবার রাত পর্যন্ত গাজায় জঙ্গি ঘাঁটিগুলিতে হামলা চালিয়েছে বায়ুসেনার বোমারু বিমানগুলি। এখনও পর্যন্ত কুড়িজন জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: পাকিস্তানে পঙ্গপালের হানা, বিরিয়ানি বানিয়ে খাওয়ার নিদান মন্ত্রীর]

সদ্য ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতেনিয়াহু সংসদে বলেছিলেন, ‘আবু আল-আটা একটি টাইম বোমা। যে কোনও মুহূর্তে সেটিতে বিস্ফোরণ ঘটাতে পারে।’ তারপরই সাফ হয়ে যায় যে জঙ্গি সংগঠনটিকে গুঁড়িয়ে দিতে বদ্ধপরিকর তেল আভিভ। এদিকে, গাজার প্রশাসক ও ইজরায়েলের শত্রু ইসলামিক জঙ্গি সংগঠনও হামাস হুঁশিয়ারি দিয়েছে যে আটাকে হত্যা করার মূল্য দিতে হবে তেল আভিভকে। সংবাদ সংস্থা এএফপি সূত্রে খবর, মিশরের মধ্যস্থতায় আপাতত সংঘর্ষবিরতিতে রাজি হয়েছে যুযুধান দুই পক্ষ। ইজরায়েলের সময় মতো বৃহস্পতিবার ভোর ৫.৩০ থেকে সংঘর্ষবিরতি লাগু হয়েছে। তবে কতক্ষণ পর্যন্ত এই চুক্তি সংঘর্ষ ঠেকাতে পারবে তা দেখার।

RAW FOOTAGE: The skies of southern Israel as hundreds of rockets are fired by Islamic Jihad from #Gaza at Israeli homes.Credit: Elkana Fadida

Posted by Israel Defense Forces on Wednesday, 13 November 2019

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং