BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

জিনপিংয়ের জাপান সফরে আপত্তি, প্রধানমন্ত্রী আবের উপর চাপ বাড়াল শাসকদল

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 8, 2020 1:36 pm|    Updated: July 8, 2020 1:36 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিন-জাপান বৈরিতা নতুন কিছু নয়। ১৯৩৭ সালের নানজিং গণহত্যা থেকে শুরু করে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পর্যন্ত জাপ বাহিনীর হাতে হেনস্তার কথা ভোলেনি চিনারা। তবে বিগত কয়েক দশকে আন্তর্জাতিক মঞ্চে সমীকরণ আমূল পালটেছে। জাপান (Japan) আগ্রাসনের পথে থেকে সরে গেলে, সেই ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে চিন (China)। ফলে ২০২০ সালেও দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক উষ্ণ হয়ে ওঠেনি। এবার পারদ আরও চড়িয়ে, চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের টোকিও সফরে প্রবল আপত্তি জানিয়েছে জাপানের শাসকদল ‘Liberal Democratic Party’।

[আরও পড়ুন: ফের ভারতের পাশে জাপান, লাদাখে চিনা আগ্রাসনের নিন্দায় সূর্যোদয়ের দেশ]

এমনিতেই কয়েক দশক থেকে পূর্ব চিন সাগরে সেনকাকু দ্বীপসমূহ নিয়ে চিন ও জাপানের মধ্যে কলহের অন্ত নেই। তার উপর মাছ ধরা থেকে হংকং ও দক্ষিণ চিন সাগরে আধিপত্য নিয়েও দুই দেশের মধ্যে সংঘাত চলছে। এহেন পরিস্থিতিতে কূটনৈতিক পথে হেঁটে সমস্যা সমাধানের জন্য গত এপ্রিল মাসেই চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের জাপান আসার কথা ছিল। কিন্তু করোনা মহামারীর জন্য সেই সফর পিছিয়ে যায়। ক্ষমতায় এসে চিনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিক করার উপর জোর দিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। তবে তাঁর চেষ্টায় বিশেষ ফল মেলেনি। মঙ্গলবার জাপানের শাসকদল ‘Liberal Democratic Party’র ইয়াসুহিদে নাকাইয়ামা সাফ বলেন, “আমাদের কাছে অন্য কোনও পথ নেই। আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাচ্ছি তিনি যেন চিনের প্রেসিডেন্টের সফর বাতিল করে দেন।”

জানা গিয়েছে, শি জিনপিংয়ের সফর বাতিল করার দাবি জানিয়ে ইতিমধ্যে একটি প্রস্তাব পেশ করেছে জাপানের শাসকদল। পাশাপাশি হংকংয়ে চিনা দমননীতির বিরুদ্ধেও সরব হয়েছে তারা। সব মিলিয়ে বেজিংয়ের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার আবের চেষ্টায় কোনও ফল হচ্ছে না। উল্লেখ্য, গত মাসে পূর্ব চিন সাগরের সামনেই প্যাট্রিয়ট পিএসি থ্রি এয়ার ডিফেন্স মিসাইল সিস্টেম মোতায়েন করেছে জাপান। সরাসরি যার নিশানায় রয়েছে চিন। শুধু তাই নয়, জাপান জানিয়েছিল, ওই মাসের মধ্যেই চারটি সেনাঘাঁটিতে পিএসি থ্রি এমএসই মিসাইল বসানো হবে। যেগুলি ১০০ কিলোমিটারেরও বেশি দূরত্বে আঘাত হানতে সক্ষম। গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে টোকিওর সঙ্গে বেজিংয়ের চরম বিবাদ শুরু হয়েছে। জাপানের নাকের ডগায় মিসাইল সাবমেরিন পাঠিয়েছে চিন। তারই জবাবে জাপানের এই মিসাইল সক্রিয়তা বলে খবর।

[আরও পড়ুন: গালওয়ানে ধাক্কা খেয়ে ‘নেপালি অস্ত্রে’ শান দিচ্ছে চিন, নজর রাখছে দিল্লি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement