৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বুধবার ২০ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বুধবার ২০ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সরকার বিরোধী বিক্ষোভে উত্তপ্ত হংকংয়ে শপিং মলের ভিতরে জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ। ছুরি নিয়ে হামলা চালাল এক ব্যক্তি। আক্রোশের জেরে স্থানীয় কাউন্সিলররের কান কামড়ে ছিঁড়ে নেওয়া হল। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ টিয়ার গ্যাসের শেল ছোঁড়ে, লাঠিচার্জও হয়। দিনেদুপুরের এমন ধুন্ধুমার কাণ্ডের জেরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে তাইকু শিং শহরে।
ঘটনার সূত্রপাত রবিবার। তাইকু শিং শহরের সিটি প্লাজা নামে একটি শপিং মলে আচমকাই ছুরি নিয়ে হামলা চালায় এক ব্যক্তি। মলের একটি রেস্তরাঁয় ভাঙচুর করা হয়। চলন্ত সিঁড়িতে ওঠার মুখে চলে হামলা। সেসময়ই শপিং মলে ঢুকেছিলেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি তথা ডেমোক্র্যাটিক পার্টির ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিলর অ্যান্ড্রু চিউ। তাঁর কান কামড়ে ছিঁড়ে ফেলা হয়। এমন অতর্কিত হামলার মুখে পড়ে চিউয়ের অবস্থা সঙ্গীন। রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকেন তিনি। রক্তমাখা হাতেই ছেঁড়া কান নিয়ে তিনি কার্যত সাহায্য প্রার্থনা করতে থাকেন।

[ আরও পড়ুন: বিমানে আগুন, বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে ]

ডেমোক্র্যাটিক পার্টির এক সদস্য জানিয়েছেন, ছুরির আঘাতে আরও অনেকে আহত হয়েছেন। তাঁদের আঘাত আরও গুরুতর। পরে জানা গিয়েছে, ছুরি নিয়ে হামলা চালানো ব্যক্তিকে ধরে পথচলতি মানুষজনই গণপ্রহার করেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়ছেন, একটি সাদা টি-শার্ট পরে মলে ঢুকেছিল ওই ব্যক্তি। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

HK-Clash1
বেশ কয়েকমাস ধরে হংকংয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য চলছে গণআন্দোলন। চিনপন্থী শাসক ক্যারি ল্যামকে উৎখাত করতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়েছে আন্দোলনের আঁচ। এই পরিস্থিতিতে গণতন্ত্রপন্থী নেতা জোশুয়া ওয়াংয়ের বিরুদ্ধে কাউন্সিল ভোটে দাঁড়ানোয় নিষেধাজ্ঞা জারি করায় সরকারের প্রতি বিদ্বেষ আরও বেড়েছে। পুলিশের বিরুদ্ধেও ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন আন্দোলনকারীরা। ‘ব্ল্যাক পুলিশ’ স্লোগান উঠছে। রবিবার সিটি প্লাজা শপিং মলেও তেমনই পরিস্থিতি তৈরি হয়। পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে গিয়ে বিক্ষোভ দমনে টিয়ার গ্যাস, গুলি ছোঁড়ে। ছড়ানো হয় লঙ্কাগুঁড়োও।

[ আরও পড়ুন: ব্যর্থ ব্রেক্সিট, ফের পার্লামেন্টের উপর দায় চাপিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর]

প্রত্যক্ষদর্শী বছর চব্বিশের জুলি জানিয়েছেন, ‘পুলিশ এসে মল থেকে আমাদের সবাইকে বের করে দিল। এটা তো অশান্তি দমনের কোনও উপায় হতে পারে না।’ আরেক বাসিন্দা ডেসমন্ড ফগের কথায়, ‘আমরা সকলে স্থানীয় বাসিন্দা। এখানে কেনাকাটা করতে এসেছিলাম। মলের বাইরে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ চলছিল। কিন্তু পুলিশ যা করল, তা নিন্দনীয়।’ এমন ধুন্ধুমারের জেরে মলের অনেকটাই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আগামী ২৪ নভেম্বর এখানে ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিলের ভোট। তার আগে তাইকু শিং শহরের এমন ঘটনা নাড়া দিয়ে গেল প্রায় গোটা দেশকে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং