১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কাঁটাতারে বিচ্ছেদ, ৬৫ বছর পর পুনর্মিলন কোরীয় পরিবারের

Published by: Tanujit Das |    Posted: August 20, 2018 5:36 pm|    Updated: August 20, 2018 9:02 pm

Korean family separated by war, reunited after decades

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একাধিকবার দেশভাগের যন্ত্রণা ভোগ করেছেন ভারতবাসী৷ সেই একই যন্ত্রণা ভোগ করে চলেছেন দুই কোরিয়ার ছিন্নমূল মানুষগুলি৷ তবে এবার হয়ত সাময়িক স্বস্তি পাবেন তাঁরা৷ ১৯৫০ থেকে ১৯৫৩ পর্যন্ত চলা  যুদ্ধে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া কোরিয়ান পরিবারগুলির জন্য সাময়িক পুনর্মিলনের ব্যবস্থা করল পিয়ংইয়ং৷ সোমবার থেকে শুরু হয়েছে তিনদিন ব্যাপী এই সাময়িক পুনর্মিলন পর্ব।

[সিপিইসি ইস্যুতে চিনের উপর চাপ তৈরির ইঙ্গিত ইমরানের]

জানা গিয়েছে, এর ফলে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে উত্তর কোরিয়ায় আসবেন ৯৩ জন এবং উত্তর কোরিয়া থেকে দক্ষিণ কোরিয়ায় আসবেন ৮৮ জন৷ তিনদিনের জন্য তাঁরা সাক্ষাৎ করতে পারবেন বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে৷ রবিবার পর্যন্ত চলেছে দুই কোরিয়ার সাক্ষাৎ প্রার্থীদের নাম তালিকাভুক্ত করার কাজ৷ সেখানে প্রত্যেককে উল্লেখ করতে হয়েছে কার সঙ্গে তাঁরা সাক্ষাৎ করতে চান এবং কেন চান৷ এমনই একজন হলেন নবতিপর বৃদ্ধ মুন হুন৷ দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিক এই বৃদ্ধ ৬৫ বছর আগে নিজের ছোট বোনের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যান৷ মৃত্যুর আগে সেই বোনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পেরে খুশি তিনি৷

[কেরলের বন্যার্তদের নিয়ে ফেসবুকে রসিকতা, চাকরি খোয়ালেন যুবক]

উল্লেখ্য, ১৯৮৮ থেকে শুরু হওয়া এই পুনর্মিলন অনুষ্ঠানে নাম এখনও পর্যন্ত লিখিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ায় ১ লাখ ৩২ হাজার মানুষ৷ যাঁদের মধ্যে অর্ধেকের বেশিই মারা গিয়েছেন। জীবিত রয়েছেন ৫৭ হাজার মানুষ। যাঁদের মধ্যে ৩৬ হাজারের বয়স ৮০ বছরের বেশি এবং ১২ হাজারের বয়স ৯০ বছরের বেশি। ২০০০-এর পর থেকে এখন পর্যন্ত২০ বার পুনর্মিলিত হয়েছেন দুই কোরিয়ার ছিন্নমূল মানুষেরা৷ সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে এবং ৬৫ বছরের বিবাদ মিটিয়ে চলতি বছরেই বৈঠক করেন উত্তর কোরিয়ার সর্বাধিনায়ক কিম জং উন ও দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে ইন৷ দুই কোরিয়া সীমান্তের বৈঠকে বসেন দুই রাষ্ট্রনায়ক৷ নিষ্পত্তি ঘটে বহু অমীমাংসিত বিষয়ের৷ চলতি বছরের পুনর্মিলনে এই বৈঠকের গুরুত্ব অপরিসীম বলে জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক মহল৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে