৫ মাঘ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

স্পষ্ট জঙ্গিযোগ! ২৬/১১ মুম্বই হামলায় খতম লস্কর সদস্যদের স্মৃতিতে প্রার্থনাসভা পাকিস্তানে

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 26, 2020 10:29 am|    Updated: November 26, 2020 10:35 am

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতে ঘটে যাওয়া সমস্ত রকম সন্ত্রাসবাদী হামলার পিছনে যে পাকিস্তানই জড়িত ফের তার প্রমাণ পাওয়া গেল। ২৬/১১ মুম্বই হামলার ১২ বছরপূর্তিতে ভারতবাসী যখন অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে মৃতদের স্মরণ করছে। ঠিক তখনই মুম্বই হামলার ঘটনায় খতম হওয়া ১০ জন লস্কর জঙ্গির স্মৃতিতে প্রার্থনাসভার আয়োজন করার খবর পাওয়া গেল পাকিস্তানে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরেই এই হামলার পিছনে যে ইসলামাবাদের প্রত্যক্ষ মদত ছিল ফের তা বোঝা গেল।

ভারতীয় গোয়েন্দাদের সূত্রে পাওয়া খবর থেকে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি মুম্বই হামলার সময় খতম হওয়া ৯ জঙ্গি ও পরে ফাঁসিতে ঝোলা আজমল কাসভের স্মৃতিতে প্রার্থনাসভা করার পরিকল্পনা নেয় লস্কর-ই-তইবা (Lashkar-e-Taiba) -এর শীর্ষ নেতৃত্ব। সেই অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার পাকিস্তান অধিকৃত পাঞ্জাবের সাহীওয়াল শহরে (Sahiwal city) একটি জমায়েত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেখানে খতম হওয়া জঙ্গিদের কর্মকাণ্ড নিয়ে আলোচনা করে জেহাদি হতে চাওয়া যুবকদের অনুপ্রাণিত করার চেষ্টা হবেই বলেই জানা গিয়েছে। সাহীওয়াল শহরের পাশাপাশি হাফিজ সইদের নেতৃত্বাধীন লস্কর ও জামাত উল দাওয়ার সমস্ত মসজিদেও এই বিশেষ প্রার্থনাসভার আয়োজন করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ‘বিশ্বকে ফের নেতৃত্ব দিতে ফিরে এসেছে আমেরিকা’, বলছেন আত্মবিশ্বাসী জো বিডেন ]

গোয়েন্দাদের সূত্রে আরও খবর, অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে লাহোরের জোহার শহরে হাফিজ সইদের বাড়িতে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করে লস্করের জেহাদি শাখার প্রধান জাকিউর রেহমান লাকভি। সেখানে সন্ত্রাসী কাজকর্মের অর্থ জোগাড় সংক্রান্ত আলোচনার পাশাপাশি কাশ্মীরের যুব সম্প্রদায়ের জেহাদে উৎসাহিত করার বিষয়েও বিস্তারিত আলোচনা হয়। এর পাশাপাশি গত ১৩ নভেম্বর গুজরানওয়ালা শহরের মার্কজ আকসায় জামাত উল দাওয়ার নেতৃত্ব ও ৭০ জন ব্যবসায়ীকে নিয়ে একটি মিটিং হয়েছে। সেখানে ব্যবসায়ীদের থেকে জঙ্গিরা জম্মু ও কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদী হামলা চালানোর জন্য প্রচুর টাকা চেয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পাঞ্জাব প্রদেশের অন্য জায়গাতেও এই ধরনের মিটিং করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ‘আর সংঘাত নয়’, অবশেষে নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্টকে অভিনন্দন বার্তা জিনপিংয়ের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement