BREAKING NEWS

২৯ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

পাকিস্তানে তৈরি হবে না হিন্দু মন্দির, ইসলামিক সংগঠনের ফতোয়ায় থমকে কাজ

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 2, 2020 11:53 am|    Updated: July 2, 2020 12:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রীতি ভেঙে ইতিহাস গড়ার দোরগোড়ায় দাঁড়িয়েছিল ইসলামাবাদ (Islamabad)। কিন্তু বাঁধা এল নিজের ঘর থেকেই। রীতিমতো হুমকি দেওয়া হল। কথা ছিল, পাকিস্তানের মাটিতে প্রথম হিন্দু মন্দির (Hindu Temple) তৈরি হবে ইসলামাবাদে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Imran Khan) অনুদানও দিয়েছিলেন। কিন্তু সেই মন্দিরের বিরোধিতা করলেন পাঞ্জাব প্রদেশে স্পিকার তথা রাজনীতিবিদ পারভেজ ইলাহি ( Pervaiz Elahi)। এর আগে ধর্মীয় সংগঠন জামিয়া আসরফিয়াও এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে।

২০১৭ সালে ক্যাপিটেল ডেভেলপমেন্ট কর্তৃপক্ষ ইসলামাবাদের ওই এলাকায় ২০ হাজার বর্গ কিলোমিটার জমি মন্দির নির্মাণের জন্য দিয়েছিলেন। তিন বছর ধরে সেখানে মন্দির তৈরির জন্য একটি ইটও গাঁথতে দেওয়া হয়নি। সব বাধা কাটিয়ে অবশেষে গত পাকিস্তানের মানবাধিকার বিষয়ক সংসদীয় সম্পাদক লাল চাঁদ মাহি মন্দির প্রতিষ্ঠার কাজের সূচনা করেছিলেন। পাকিস্তান সরকার এবার মন্দির নির্মাণের জন্য ১০ কোটি টাকা অনুদানেরও ঘোষণা করে দিয়েছিলেন। এর এক সপ্তাহের মধ্যেই মন্দির প্রতিষ্ঠায় বাধা পড়ল। প্রথম বাদ সাধল জামিয়া আসরফিয়া। এর ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই মন্দির তৈরির বিরোধিতা করলেন রাজনীতিবিদ পারভেজ ইলাহি।

[আরও পড়ুন : মেক্সিকোর নেশামুক্তি কেন্দ্রে বন্দুকবাজের হামলা, মৃত কমপক্ষে ২৪]

বুধবার এক ভিডিও ইন্টারভিউতে পারভেজ ইলাহি বলেন, “ইসলামের নামে পাকিস্তান তৈরি হয়েছে। ফলে সেখানে কোনও হিন্দু মন্দির তৈরি করার অর্থ ইসলামের বিরোধিতা করা।” একই কথা শোনা গিয়েছিল জামিয়া আসরফিয়া লাহোর ইউনিট-এর প্রধান মুফতি জিয়াউদ্দিনের গলাতেও। জামিয়ার লাহোর ইউনিট-এর প্রধান মুফতি জিয়াউদ্দিন বলেছেন, “সংখ্যালুদের ধর্মীয় স্থানের মেরামতির জন্য সরকার অর্থ সাহায্য করতে পারে। কিন্তু নতুন করে ধর্মীয় স্থান তৈরির করার বিরোধিতা করছি আমরা। মানুষের করের টাকা এভাবে নষ্ট করা যাবে না।” এদিকে আবার ইসলামাবাদ হাইকোর্ট ক্যাপিটেল ডেভেলপমেন্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে নোটিস জারি করেছে। বলা হয়েছে মন্দির নির্মাণ শহরের মাস্টারপ্ল্যানের বিরুদ্ধে। ফলত একের পর এক বাধার মুখে পড়ছে হিন্দু মন্দির তৈরির পরিকল্পনা। ফলে কবে পাকিস্তানের মাটিতে শ্রীকৃষ্ণের মন্দির তৈরি হয়, তা এখন দেখার।

[আরও পড়ুন : ‘এটাই কমিউনিস্ট পার্টির আসল রূপ’, লাদাখে অশান্তি নিয়ে চিনকে বিঁধলেন ট্রাম্প!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement