২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যাকে এতদিন আদর-যত্নে লালন-পালন করছিল, এবার সেই জাকির নায়েককে নিয়েই তিতিবিরক্ত মালয়েশিয়া৷ সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক বক্তব্য পেশ করায় দিন কয়েক আগেই তাকে দেশ থেকে বহিষ্কার করার দাবি তুলেছিলেন মালয়েশিয়ার মানব-সম্পদ মন্ত্রী৷ এবার সরাসরি বিতর্কিত এই ইসলাম ধর্মপ্রচারকের সভা বন্ধ করল মালয়েশিয়া পুলিশ৷

[ আরও পড়ুন: লন্ডনের ভারতীয় দূতাবাসে চড়াও পাক সমর্থকরা, গ্রেপ্তার ৪]

জানা গিয়েছে, বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে জাকির ইস্যুতে সরকারের এই সিদ্ধান্ত জানান দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ওয়াসিন৷ তিনি বলেন, ‘‘মালয়েশিয়াবাসীর কথা ভেবে এমন সাম্প্রদায়িক মন্তব্য কখনই বরদাস্ত করা হবে না৷ এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে সরকার৷ প্রত্যেককে আমি একটা কথা মনে করাতে চাই, আমার দপ্তরের অধীনস্থ সংস্থাগুলি দেশের শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখতে সর্বতোভাবে কাজ করবে৷ এবং যে কোনও মূল্যে তা রক্ষা করবে৷ যাঁরা দেশের শান্তি বিঘ্নিত করার চেষ্টা করবে, তাঁদের বিরুদ্ধেও চরম ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷’’ এরপরই জাকিরকে প্রকাশ্যে বক্তব্যে পেশ করতে বাধা দেয় মালয়েশীয় পুলিশ৷ বন্ধ করে দেওয়া হয় তার একটি সভা৷

[ আরও পড়ুন: ‘মাত্র ১০ মিনিট লাগবে’, হংকংয়ের গণতন্ত্রকামীদের হুমকি লাল ফৌজের ]

প্রসঙ্গত, মালয়েশিয়ার কোটাবারুতে একটি সভায় ভারতের মুসলমানদের সঙ্গে মালয়েশিয়ায় বসবাসকারী হিন্দুদের তুলনা টানে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়ার মামলায় অভিযুক্ত ওই ধর্মপ্রচারক। তাঁর বক্তব্য ছিল, ‘‘ভারতে মুসলমানরদের তুলনায় মালয়েশিয়ায় হিন্দুরা দ্বিগুণ সুযোগ-সুবিধা পায়। এবং মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মহাথীর মহম্মদের তুলনায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বেশি অনুগত এখানের হিন্দুরা।’’ তার এই মন্তব্যকে ঘিরে বিতর্কের ঝড় ওঠে৷ সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক বক্তব্যের মাধ্যমে দেশের শান্তি বিঘ্নিত করার চেষ্টার অভিযোগ তার বিরুদ্ধে সরব হন মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী এম কুলাসেগারান৷ তিনি সাফ জানান, “মালেশিয়ায় বিভিন্ন ধর্মের মানুষ থাকেন। তাদের মধ্যে বিভেদ ছড়াচ্ছে জাকির নায়েক। আর্থিক কেলেঙ্কারী ও জঙ্গি সংগঠনগুলিকে মদতের অভিযোগে ভারত থেকে পালিয়েছে সে৷ মালয়েশিয়ায় আত্মগোপন করে রয়েছে৷ এবার ওঁকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়ার সময় এসেছে।’’

[ আরও পড়ুন: লন্ডনের ভারতীয় দূতাবাসে চড়াও পাক সমর্থকরা, গ্রেপ্তার ৪]

সূত্রের খবর, জাকিরের বিতর্কিত মন্তব্যের বিষয়টি তিনিই মন্ত্রিসভার বৈঠকে তোলেন৷ এবং তাঁর কথা মতোই জাকিরের মুখ বন্ধ করার ব্যবস্থা করল মালয়েশীয় সরকার৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং