১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

OMG! মাছ মেরে এ কী শাস্তি হল মার্কিন নাগরিকের?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 28, 2017 3:10 pm|    Updated: July 28, 2017 3:10 pm

Man cut girlfriend's fish in half during argument

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কী বলবেন একে লঘু পাপে গুরু দণ্ড। এই উদাহরণ বোধহয় এক্ষেত্রে পানসে মনে হতে পারে। বান্ধবীর সঙ্গে অশান্তি। রাগের মাথায় ঘরের জিনিসপত্র ভেঙে লণ্ডভণ্ড করে দিয়েছিল এক যুবক। এই উত্তেজনার মধ্যে অ্যাকোরিয়ামে থাকা একটি মাছ দু টুকরো হয়ে যায়। ৯ বছরের শিশুর অভিযোগ শুনে পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে হাতকড়া পড়ায়। আদালত জানায় শ্রীঘরেই যেতে হবে অভিযুক্তকে। মাছ মেরে আমেরিকার কানেক্টিকাটের বাসিন্দা জুয়ান ভেগা তাই আপাতত হাজতে।

[ছোটবেলায় শিকার হয়েছিলেন যৌন হেনস্তার, জানালেন অক্ষয় কুমার]

কানেক্টিকাটের ব্রিস্টলে থাকেন জুয়ান ভেগা। ৩৩ বছরের যুবকের সঙ্গে তাঁর গার্লফ্রেন্ডের বেশ কিছুদিন ধরে বনিবনা হচ্ছিল না। একদিন বান্ধবীর বাড়িতে গিয়ে তাঁর সঙ্গে বচসায় জড়ান জুয়ান। প্রেমিকাকে কার্যত দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। অভিযোগ, গত বুধবার গার্লফ্রেন্ডের বাড়িতে ঢুকে আচমকা জুয়ান ভাঙচুর শুরু করে। বাধা দিলে প্রেমিকাকে মারধর করা হয়। ঘরে থাকা টিভি সেট এবং অন্যান্য সামগ্রী মাটিতে মিশিয়ে দেয়। যার মধ্যে ছিল অ্যাকোরিয়ামও। মাছ থাকার ওই পাত্রে একটি বেট্টা ফিশ ছিল। তাণ্ডবের পর দেখা যায় সুন্দর মাছটি দু টুকরো হয়ে পড়ে রয়েছে। পুলিশ তদন্তে গিয়ে আক্রান্তর পরিবারের সঙ্গে কথা বলে অদ্ভুত এক পয়েন্ট পায়। বাড়িতে থাকা একটি বাচ্চা জানায় তার প্রিয় মাছটিকে জুয়ান ‘খুন’ করেছে। শিশুটির সঙ্গে কথা বলে তদন্তকারীরা বুঝতে পারেন কত বড় ঝড় তার ওপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে। মূলত শিশুটির কথা শুনে জুয়ানের বিরুদ্ধে কঠিন ধারায় মামলা রুজু হয়। ঘটনার দিন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়। আদালতে বিচারপতি জানান নিরীহ মাছকে হত্যা করায় শিশুমনে ব্যাপক প্রভাব পড়েছিল। তাই অভিযুক্তর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া প্রয়োজন। এজন্য ধৃতের ১২০ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়। পাশাপাশি জুয়ানকে করা হয় ১.৫ লক্ষ ডলার জরিমানা।

[পায়ে লুটিয়ে পড়লেন মহিলা, লজ্জায় লাল মন্ত্রী]

তাইল্যান্ড এবং কম্বোডিয়ায় বেট্টা ফিশ দেখা যায়। যা শোভা পাচ্ছিল কানেটিকটের ব্রিস্টলের বাড়িতে। নিরীহ মাছটি বাড়ির শিশুটির কাছে ছিল সব। অতএব সামান্য দোষ এখানে অনেক কিছু।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে