Advertisement
Advertisement
POK

নেই খাবার, অন্যায্য করের বোঝা, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ফুঁসছে অধিকৃত কাশ্মীর

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ নিয়ে বহুদিন ধরেই ক্ষোভে ফুঁসছেন PoK-এর বাসিন্দারা।

Massive protest erupts in POK over unjust Pakistan taxes

বিক্ষোভে উত্তাল পাক অধিকৃত কাশ্মীর।

Published by: Suchinta Pal Chowdhury
  • Posted:May 10, 2024 7:50 pm
  • Updated:May 10, 2024 8:15 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের সাধারণ মানুষের বিক্ষোভে উত্তাল পাক অধিকৃত কাশ্মীর। কয়েকদিন আগেই নতুন কর আরোপ করে পাকিস্তানের সরকার। যা নিয়ে প্রতিবাদে শামিল PoK-এর বাসিন্দারা। তাঁদের দাবি, এই কর অন্যায্য। তার উপর কোনও প্রয়োজনই মেটাচ্ছে না ইসলামাবাদ। এনিয়ে প্রতিবাদে পথে নেমেছিলেন সেখানকার বাসিন্দারা। অভিযোগ, বহু বিক্ষোভকারীদের গ্রেপ্তার করেছে পাক পুলিশ। সেই থেকেই অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে।  

এএনআই সূত্রে খবর, পাক সরকারের বিরুদ্ধে একগুচ্ছ অভিযোগ নিয়ে শনিবার বড়সর প্রতিবাদ মিছিলের ডাক দিয়েছিল জম্মু ও কাশ্মীর জয়েন্ট আওয়ামি অ্যাকশন কমিটি। পাশাপাশি আর্জি জানানো হয়েছিল দোকানপাট বন্ধ রাখারও। কিন্তু এই মিছিল রুখতে তৎপর পাকিস্তান। এই প্রতিবাদ রুখতে বিভিন্ন জায়গায় ইসলামাবাদ মোতায়েন করে পাক রেঞ্জার্স ও পুলিশবাহিনী। শুক্রবারই PoK-এর দাদিয়াল তহসিল ও মিরপুর জেলায় বড় মিছিল বের হয়। সেখান থেকে কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হলে পরিস্থিতি ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। ওই এলাকাগুলোর বিভিন্ন রাস্তায় প্রতিবাদে নামেন বহু মানুষ। তার পরই অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করে ৭০ জনকে গেপ্তার করা হয়। এমনকি সেখানে ১৪৪ ধারাও জারি করে দেওয়া হয়।

Advertisement

[আরও পড়ুন: গলায় বেল্ট পেঁচিয়ে গাড়ির পিছনে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ! নিউ ইয়র্কের রাজপথেই ভয়াবহ দৃশ্য]

জানা গিয়েছে, গত বছরের আগস্ট মাস থেকে পাক অধিকৃত কাশ্মীর বিদ্যুতের খরচ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। জিনিসপত্রের দাম আকাশছোঁয়া। যার ফলে ক্ষোভ আরও বাড়ছিল বাসিন্দাদের মধ্যে। ফলে চলতি মাসের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রয়োজনীয় দাবি-দাওয়া পূরণ করা নিয়ে একটি চুক্তি করেছিল পাক সরকার। কিন্তু দিনের পর দিন পেরিয়ে গেলেও পিওকের বাসিন্দাদের প্রয়োজনে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি। উলটে ঘাড়ে চেপেছে অন্যায্য করের বোঝা। যার প্রতিবাদেই শনিবার বড় মিছিলের ডাক দেওয়া হয়েছিল। অভিযোগ, এই প্রতিবাদ-বিক্ষোভ কড়া হাতে দমন করছে পাক প্রশাসন।

Advertisement

উল্লেখ্য, ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ নিয়ে বহুদিন ধরেই ক্ষোভে ফুঁসছেন পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বাসিন্দারা। তাঁদের অভিযোগ গম দেওয়া বন্ধ । জলের উৎস দখল করে শোষণ করা হচ্ছে। মিলছে না প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। চড়া দাম বিভিন্ন জিনিসের। শিক্ষা ব্যবস্থার বেহাল দশা। দিন দিন দুর্বিষহ হয়ে উঠছে পরিস্থিতি। অথচ কোনও ভ্রুক্ষেপ নেই পাকিস্তান প্রশাসনের। তাই পাক সরকারের শাসনে থাকতে নারাজ তাঁরা। ফলে প্রশ্ন উঠছে, আবার কি ভাঙতে চলেছে পাকিস্তান?

বলে রাখা ভালো, কাশ্মীর নিয়ে রাষ্ট্রসংঘে ভারতকে বার বার খোঁচা দিয়েছে পাকিস্তান। কিন্তু ভারতের পালটা মারে হালে পানি পায়নি ইসলামাবাদ। নয়াদিল্লি প্রতিবারই জানিয়েছে, অধিকৃত কাশ্মীর ছাড়ুক পাকিস্তান। সংখ্যালঘুদের উপর অকথ্য নির্যাতন চলে সেখানে।    

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ