০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ২৬ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ইসলামাবাদের মদতেই PoK-তে বাড়ছে জঙ্গিদের দাপাদাপি, আন্দোলনে নাগরিকরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 8, 2018 12:42 pm|    Updated: July 8, 2018 12:47 pm

Massive protests have erupted in Pakistan occupied Kashmir against the rising activities of terrorists in the region

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এতদিন আন্তর্জাতিক মহলে ভারত যে অভিযোগ করে এসেছে, এবার তাকেই মান্যতা দিলেন খোদ পাক অধিকৃত কাশ্মীরের নাগরিকরা। ভারতের সুরে সুর মিলিয়ে তাঁদেরও অভিযোগ, পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে ধীরে ধীরে জঙ্গিদের কারখানা করে তুলেছে পাকিস্তান। ইসলামাবাদের মদতেই সেখানে নিশ্চিন্তে দিনযাপন করছে লস্কর-ই-তইবা, জইশ-ই-মহম্মদের মতো সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সদস্যরা৷ এই নিয়ে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের রাওয়ালকোট, তারার খেল-সহ একাধিক এলাকায় লাগাতার আন্দোলনে নেমেছেন সেখানকার বাসিন্দারা৷

[আমেরিকার কানসাসের রেস্তরাঁয় চলল গুলি, মৃত্যু এক ভারতীয় ছাত্রর]

দীর্ঘদিন ধরেই তাঁদের অধিকারের দাবিতে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন সেখানকার বাসিন্দারা৷ তাঁদের অভিযোগ, ৯/১১-তে মার্কিনমুলুকে জঙ্গি হানার পর যখন থেকে আন্তর্জাতিক মহল পাকিস্তানের উপরে জঙ্গিবাদে মদত দেওয়ার বিষয়ে চাপ বাড়িয়েছে, তখন থেকেই অধিকৃত কাশ্মীরে ঘাঁটি গড়তে শুরু করেছে লস্কর ও জইশের মতো জঙ্গি সংগঠনগুলি৷ আর এতে সম্পূর্ণ মদত রয়েছে পাকিস্তানের৷ অনেকদিন ধরেই এই অঞ্চলের মানুষের অধিকারের জন্য লড়াই চালাচ্ছে জম্মু-কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্ট বা জেকেএলএফ৷ তার নেতা সর্দার জাগির খান জানিয়েছেন, সেখানে প্রত্যেকদিন লঙ্ঘন করা হয় মানবাধিকার৷ নিরাপদ নন নারী ও শিশুরা৷ এর বিরুদ্ধেই পথে নেমে ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন তাঁরা৷ এই জম্মু-কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্টের নেতার হুমকি, সিন্ধ, কোয়েট্টা, পেশোয়ারের সঙ্গে PoK-কে গুলিয়ে ফেললে ভুল করবে ইসলামাবাদ৷ কারণ এখানে নির্দ্বিধায় মানুষ খুন করা সহজ কাজ নয়৷ তাঁর দাবি, বীর যোদ্ধা ও শহিদদের রক্ত মিশে রয়েছে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের মাটিতে৷ কেবল সন্ত্রাসবাদই নয়, PoK-এর নাগরিকদের মনে জমে রয়েছে আরও ক্ষোভ৷ তাঁদের অভিযোগ, এখানে মানুষের বসবাসের পরিবেশ বজায় রাখেনি পাকিস্তান৷ নেই কোনও অর্থ সাহায্য, নেই কোনও লগ্নি, নেই কোনও রাস্তাঘাট, বাড়ছে বেকারত্ব৷

[তথ্য পাচার রুখতে কড়া টুইটার, বন্ধ হল ৭ কোটি অ্যাকাউন্ট]

প্রসঙ্গত, ভারতের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য অনেকদিন ধরেই পাক অধিকৃত কাশ্মীরে জঙ্গিদের নিশ্চিন্তের বাসস্থান গড়ে দিয়েছে পাকিস্তান৷ সীমান্ত পেড়িয়ে সেখান থেকেই ভারতে প্রবেশ করে লস্কর, জইশ জঙ্গিরা৷ আন্তর্জাতিক মহলে একাধিকবার এই অভিযোগ করে এসেছে নয়াদিল্লি৷ যা কোনওবারই নামতে চায়নি ইসলামাবাদ৷ পাঠানকোট, উরি হামলার পর, ২০১৬-তে বাধ্য হয়ে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালিয়েছিল ভারতীয় সেনা৷ গুড়িয়ে দিয়েছিল জঙ্গিদের নিশ্চিন্তের ঘাঁটি৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে