BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এশিয়া নয়, ইউরোপ থেকেই নিউ ইয়র্কে ছড়িয়েছে করোনার বিষ!  

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: April 11, 2020 10:58 am|    Updated: April 11, 2020 10:58 am

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এশীয় কোনও দেশ থেকে নয়, গত দু’-তিন মাসে ইউরোপীয় দেশগুলি থেকে আসা পর্যটকদের কারণেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণ হচ্ছে। দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত রিপোর্টে এমনটাই দাবি করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ভারতে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণ হয়নি, ভুল শুধরে জানাল WHO]

এখনও পর্যন্ত করোনার আক্রমণে আমেরিকায় মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার ৫৮৬ জন মানুষের। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লক্ষ ৯৬ হাজার ৫৩৫। গত চব্বিশ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রমণ ছড়িয়েছে ৩৫ হাজার ৯৮ জনের মধ্যে। গত কয়েক দিন ধরেই করোনার ভরকেন্দ্র হয়ে উঠেছে আমেরিকা। মার্কিন দৈনিকের ওই রিপোর্টে বলা হচ্ছে, গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকেই করোনা সংক্রমণ শুরু হয় আমেরিকায়। এবং মার্চের ১১ তারিখ অবধি ইউরোপীয় বিভিন্ন দেশ থেকে আমেরিকায় এসেছেন পর্যটকরা। এবং ৩১ জানুয়ারি চিন থেকে আকাশপথে আর কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। মার্কিন মুলুকের বিভিন্ন মেডিক্যাল কলেজে করোনা নিয়ে গবেষণায় এই তথ্য উঠে এসেছে।

নিউ ইয়র্কের একদল গবেষকের মতে, মাত্র দু’সপ্তাহে নিউ ইয়র্কে এতটা সংক্রমণ হতে পারে না। দু’তিন মাস ধরে করোনা ছিল। কিন্তু সেভাবে প্রকাশ পায়নি। এবার ঠিকমতো পরীক্ষা চালু করতেই আসল সত্যিটা বেরিয়ে এসেছে। মার্কিন গবেষকরা বলেছেন, ইটালি ও স্পেনের অবস্থা দেখলেই নিউ ইয়র্কের ছবিটা পরিষ্কার হয়ে যাবে।  তবে শক্তিধর আমেরিকা যে করোনার কাছে জবুথবু তা স্পষ্ট। সেখানেও লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে প্রাণ হারিয়েছেন ২ হাজার ১০৮ জন।

উল্লেখ্য, ঠিক ১০১ দিন আগে শোনা গিয়েছিল একটি নতুন ভাইরাস থাবা বসিয়েছে দুনিয়ায়। তারপর ধীরে ধীরে বিশ্ববাসী পরিচিত হল COVID-19 শব্দটির সঙ্গে। আর সেঞ্চুরি পার করে তার বীভৎস রূপ দেখে ত্রস্ত পৃথিবী। কারণ এই মারণ ভাইরাস ১০১ দিনে প্রাণ কেড়ে নিয়েছে এক লক্ষেরও বেশি মানুষের। যতদিন যাচ্ছে, ততই বাড়ছে করোনার শক্তি। বাড়ছে বিস্তার। এএফপির খবর অনুযায়ী, ডিসেম্বরের পর থেকে এখনও পর্যন্ত বিশ্বের ১৯৩টি দেশে আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ১৬ লক্ষ টপকে গিয়েছে। যার মধ্যে তিন লক্ষ ৩১ হাজার মানুষ এই সংক্রমণ থেকে মুক্ত হতে পেরেছেন। অর্থাৎ বিশ্বজুড়ে এই ত্রাহি ত্রাহি রব যে সহজে শেষ হওয়ার নয়, তা বেশ স্পষ্ট। এভাবে আরও কতদিন বহাল থাকবে শ্মশানের নিস্তব্ধতা, ভেবে কূল পাচ্ছেন না গবেষকরাও।

[আরও পড়ুন: করোনা LIVE UPDATE: গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত ৪০, আক্রান্ত ১,০৩৫ জন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement