১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতে এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণ হয়নি, ভুল শুধরে জানাল WHO

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: April 11, 2020 8:53 am|    Updated: April 11, 2020 8:53 am

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এখনও ভারতে গোষ্ঠী সংক্রমণের আকার নেয়নি করোনা। নিজেদের ভুল স্বীকার করে জানিয়ে দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)।

[আরও পড়ুন: এবার আমাজনের ইয়োনামামি উপজাতির একজনের শরীরে মিলল COVID-19 ভাইরাস]

নোভেল করোনার প্রকোপে বিশ্বের কোথায় কী পরিস্থিতি, তা নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে WHO। তাতে ভারতে পরিস্থিতি তৃতীয় পর্যায় অর্থাৎ গোষ্ঠী সংক্রমণের পর্যায়ে রয়েছে বলে দেখানো হয়। তা নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে প্রশ্ন উঠতে শুরু করলে শুক্রবার একটি বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ‌্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ভুল স্বীকার করে নেন WHO-এর এক আধিকারিক। জানিয়ে দেন, ভারতে করোনা গণ্ডিবদ্ধ পর্যায়ে (ক্লাস্টার) পৌঁছে গেলেও তা এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণের আকার ধারণ করেনি। রিপোর্টে তা ভুলবশত দেখানো হয়েছিল। এমনকী, সংশোধিত রিপোর্টে ভুল সংশোধন করে এ কথা উল্লেখও করা হয়েছে বলে WHO সূত্রে দাবি করা হয়।

এর আগে WHO-এর ওয়েবসাইটের ভারতীয় কলামে উল্লেখ করা হয়েছিল, এদেশে গোষ্ঠী বা কমিউনিটি সংক্রমণ চলছে। আর চিনে হয়েছে গণ্ডিবদ্ধ সংক্রমণ। ইতিমধ্যে বিশ্বব্যাপী প্রায় ১৬ লক্ষ মানুষ করোনা সংক্রমিত। মৃত প্রায় ৯৫ হাজার। এই তথ্যও উল্লেখ রয়েছে WHO-এর ওয়েবসাইটে। এদিকে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বক্তব‌্য খারিজ করেছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। শুক্রবার তারা সাফ জানিয়েছে, ভারত স্টেজ-থ্রি সংক্রমণে প্রবেশ করেনি। অবশ‌্য স্বাস্থ‌্যমন্ত্রকের মন্তব‌্য আসার আগেই WHO-এর তরফে ভুল স্বীকার করে নেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, এপর্যন্ত ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭ হাজার ৪৪৭ জন মানুষ। মারণ রোগটির কবলে পড়ে প্রাণ দিতে হয়েছে ২৩৯ জনকে। ভাইরাসকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬৪৩ জন আক্রান্ত। সদ্য, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং জানান, তাঁর রাজ্যে গোষ্ঠী সংক্রমণ হয়েছে। দেশজুড়ে এমন অনেক করোনা পজিটিভ মামলা সামনে আসছে যেখানে আক্রান্তের বিদেশ তো দূরঅস্ত, তাঁর বিন রাজ্যেও যাননি। ফলে সরকার যাই দাবি করুক না কেন বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে ইতিমধ্যেই স্টেজ থ্রি-তে প্রবেশ করেছে দেশ।

[আরও পড়ুন: করোনার জেরে বিশ্বে বাড়তে পারে সন্ত্রাসী হামলা, আশঙ্কা প্রকাশ রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিবের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement