BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সাইক্লোনের দাপটে নিশ্চিহ্ন আশ্রয়, আমগাছই আঁতুড়ঘর তরুণীর

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 7, 2019 1:15 pm|    Updated: April 7, 2019 3:29 pm

Mozambique woman gives birth in tree while escaping Cyclone

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইদাইয়ের দাপটে ঘর হারিয়েছেন৷ সহায়সম্বলহীন মহিলার ভরসা বলতে আর কেউ নেই৷ কিন্তু তাঁর কাঁধে হাজারও দায়িত্ব৷ তিনি ছাতার মতো রোদ-ঝড়-জল থেকে আড়াল করে রাখেন তাঁর বছর দু’য়েকের সন্তানকে৷ ছোট্ট ছেলের ভরসা যে কেবল তিনিই৷ তবে একইসঙ্গে তাঁর গর্ভে বেড়ে উঠছিল আরেকজন৷ যার উপস্থিতি প্রতি মুহূর্তে অনুভব করতে পারছিলেন ওই মহিলা৷ বিপর্যয় যতই আসুক না কেন, সন্তানদের রক্ষা করবেন, এই ভাবনায় ওই মহিলা যা করলেন তা বিপর্যয়ের মাঝে একটুকরো আলোর দিশা হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ 

[ আরও পড়ুন: যুদ্ধের আবহ তৈরি করে ভোটে জেতার চেষ্টা করছে বিজেপি, দাবি ইমরানের]

গত ১৪ মার্চ৷ আকাশে কালো মেঘ৷ আচমকাই সাইক্লোন ইদাই আছড়ে পড়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকার মোজাম্বিকে৷ মুহূর্তের মধ্যে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় সব কিছু৷ বদলে দেয় মোজাম্বিকের চেহারা৷

IDAI

এক্কেবারে বিপর্যস্ত হয়ে যায় গোটা এলাকা৷ ভেঙে যায় বাড়িঘর৷ আশ্রয়হীন হয়ে পড়েন শয়ে-শয়ে মানুষ৷

IDAI

সেই তালিকাতেই ছিলেন আমেলিয়া৷ ঘুম ভেঙে একদিন দেখেন, তাঁর বাড়িও ভেঙে গিয়েছে৷ বাড়ির মেঝেতেও ঢুকে গিয়েছে জল৷ দু’বছরের সন্তানকে নিয়ে বাড়ি ছেড়ে বেড়িয়ে পড়েন তিনি৷ একে ন’মাসের সন্তানসম্ভবা, তার উপর আবার প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে মাথার ছাদটুকুও চলে গিয়েছে৷ কোথায় যাবেন, কিছুই ভেবে পাচ্ছিলেন আমেলিয়া৷

IDAI

সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ির সামনে একটি আমগাছের নিচেই আশ্রয় নিয়েছিলেন তিনি৷ কিন্তু প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মাঝেই সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার ইঙ্গিত পান আমেলিয়া৷ তড়িঘড়ি আমগাছের উপরে উঠে পড়েন৷ সেখানেই একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জন্ম দেন৷ দু’দিনের জন্য আমগাছই হয়ে গিয়েছিল আমেলিয়ার আঁতুড়ঘর৷ বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী তাঁকে উদ্ধার করেন৷ মা এবং সদ্যোজাত আপাতত সুস্থ রয়েছে৷ সাধ করে আমেলিয়া মেয়ের নাম রেখেছেন- সারা৷

IDAI

 

[ আরও পড়ুন: সার্কাস দেখানোর সময় রিং মাস্টারের উপর চড়াও সিংহ, দেখুন রোমহর্ষক ভিডিও]

এদিকে, সাইক্লোন ইদাইয়ের করাল গ্রাসে মোজাম্বিকের অবস্থা অত্যন্ত সঙ্গীন৷ প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত সাতশোজন৷ ভেঙে গিয়েছে বহু ঘরবাড়ি৷ আশ্রয় হারিয়ে ত্রাণশিবিরে ঠাঁই নিয়েছেন অনেকেই৷ কলেরা, জ্বরে ভুগছেন বিপর্যস্তরা৷ কলেরায় অসুস্থের সংখ্যা প্রায় হাজার ছাড়িয়েছে৷ সরকারি সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই একজন কলেরায় মারা গিয়েছেন৷ অসুস্থদের অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক৷ যুদ্ধকালীন তৎপরতায় বিপর্যস্তদের উদ্ধারকাজ চলছে৷এসবের মাঝে সারার আগমনই বুঝিয়ে দিয়েছেন, প্রকৃতি ধ্বংস করে তো মানুষ সৃষ্টি করে৷ ভাঙাগড়ার খেলা একইসঙ্গে চলতে থাকে৷

IDAI

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে