BREAKING NEWS

২২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শুক্রবার ৫ জুন ২০২০ 

Advertisement

জেলে বিষ দেওয়া হচ্ছে নওয়াজ শরিফকে, বিস্ফোরক অভিযোগ ছেলের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: October 23, 2019 1:56 pm|    Updated: October 23, 2019 1:56 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানে গুপ্তহত্যার বিষয়টি কার্যত জলভাত৷ ওই দেশের সেনা ও রাজনৈতিক দলগুলির বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে চলা ক্ষমতার লড়াই নতুন কিছু নয়৷ এবার, এমনই এক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের পুত্র হুসেন নওয়াজ৷ তিনি অভিযোগ করেন, জেলে তাঁর বাবাকে বিষ দেওয়া হচ্ছে৷

বর্তমানে দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে জেলে রয়েছেন নওয়াজ শরিফ৷ গত সোমবার, হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন৷ ব্যক্তিগত ডাক্তারের পরামর্শে তিন বারের পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে লাহোরর সার্ভিসেস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সোমবার রাতেই রক্ত পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, প্লেটলেট কাউন্ট অস্বাভাবিক হারে কমে গিয়েছে। এই ঘটনার পরই শরিফপুত্র সন্দেহ প্রকাশ করেন৷ লন্ডন থেকে টুইটে হুসেন লেখেন, ‘দুর্নীতি দমন সংস্থার হেফাজতে বাবাকে বিষ দেওয়া হতে পারে। এই কারণেই বাবার শারীরিক অবস্থার ক্রমাগত অবনতি হচ্ছে।’ মঙ্গলবার তাঁর স্বাস্থ্যের সামান্য উন্নতি হয়েছে বলে পাক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে। যদিও এখনও বিপন্মুক্ত নন পাকিস্তান মুসলিম লিগের (নওয়াজ) শীর্ষ নেতা৷ দলের আরও এক নেতা আতাউল্লাহ তারার জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসার সময় পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর প্লেললেট কাউন্ট ২ হাজারে নেমে গিয়েছিল। তবে চিকিৎসার পর তা বেড়ে ২০ হাজার হয়েছে।

আল-আজিজা স্টিল মিল দুর্নীতি মামলায় ৭ বছরের জেল হয়েছে নওয়াজ শরিফের। সেই জেলের মেয়াদ শুরু হয়েছে ২০১৮-র ২৪ ডিসেম্বর থেকে। যদিও তাঁকে ফাঁসানো হয়েছে বলে বরাবর অভিযোগ জানিয়ে এসেছেন প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী৷ বিশ্লেষকদের একাংশের মতে, সরাসরি নাম না করলেও ইমরান খান প্রশাসনের দিকেই আঙুল তুলেছেন হুসেন নওয়াজ৷ পারভেজ মুশারফের আমল থেকেই সেই অর্থে সেনার সঙ্গে সম্পর্ক খুব একটা ভাল নয়৷ এদিকে, ইমরান খানকে ক্ষমতায় বসিয়েছে পাক সেনাই৷ ফলে ষড়যন্ত্রের আশঙ্কা এখনই উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না৷

[আরও পড়ুন: ট্রুডোর নাগালের বাইরে ম্যাজিক ফিগার, কানাডায় ‘কিং মেকার’ শিখ নেতা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement