১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

গ্রেপ্তারের পর আদিয়ালা জেলে নওয়াজ, মেয়েকে পাঠানো হল গেস্ট হাউসে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 14, 2018 8:28 am|    Updated: July 14, 2018 9:22 am

Nawaz Sharif arrested at Lahore airport

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। শুক্রবার লন্ডন ফেরত বিমান থেকে লাহোরে নামা মাত্রই তাঁকে গ্রেপ্তার করে পাকিস্তানের পুলিশ। তাঁর সঙ্গে তাঁর মেয়ে মরিয়ামকেও গ্রেপ্তার করা হয়। আপাতত নওয়াজকে রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা জেলে পাঠানো হয়েছে। মেয়ে মরিয়ামকে রাখা হয়েছে সেইহালা রেস্ট হাউজে।

পাক প্রশাসনের আগাম ঘোষণা ছিলই। সেই মতো চূড়ান্ত প্রস্তুতিও নিতে শুরু করে পাকিস্তানের তদারকি সরকার। কারণ নওয়াজ শরিফ ও তাঁর কন্যা মরিয়ম শরিফ গ্রেপ্তার হলে পাকিস্তানজুড়ে তীব্র অশান্তি ও হিংসা ছড়িয়ে পড়বে বলে আশঙ্কিত প্রশাসন। সেই মতোই নেওয়া হয় প্রস্তুতি। যে কারণে শুক্রবার দেশে ফেরার সময় কয়েক দফায় পিছিয়ে যায় প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এবং তাঁর কন্যা মরিয়মের। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শুক্রবার ন’টা নাগাদ লাহোর নামতেই গ্রেপ্তার হন নওয়াজ। বিভিন্ন পাক সংবাদমাধ্যম অবশ্য আগেই দাবি করেছিল, আবু ধাবিতে নওয়াজ ও তাঁর মেয়েকে আগেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁদের নিরাপদে পাকিস্তানে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করছে আমিরশাহি প্রশাসন।

[ লাহোরে পা রাখলেই গ্রেপ্তারির সম্ভাবনা নওয়াজ ও মেয়ে মারিয়মের ]

লাহোর বিমানবন্দর থেকে নওয়াজ শরিফ ও তাঁর মেয়েকে রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা জেলে নিয়ে যাওয়া হয়। মরিয়মকে পরে শিয়ারা রেস্ট হাউসে নিয়ে যাওয়ার কথা। প্রথমে ঠিক ছিল দু’জনকে হেলিকপ্টারে করে রাওয়ালপিন্ডি নিয়ে যাওয়া হবে। কিন্তু রাত হয়ে যাওয়ায় বিশেষ বিমানে তাঁদের উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয় বলে খবর। অবশ্য দাদুর কারাবাসের আগেই নওয়াজ শরিফের দুই নাতিকে হেপাজতে নিয়েছে লন্ডন পুলিশ। তাঁদের ফ্ল্যাটের বাইরে তাঁরা এক ব্যক্তিকে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ। বৃহস্পতিবার ফ্ল্যাটটির বাইরে দাঁড়িয়ে জড়ো হওয়া বিরোধীদের মধ্যে এক ব্যক্তি শরিফের দুই নাতি জুনেইদ সফদর ও জাকারিয়া শরিফের উদ্দেশে আপত্তিকর মন্তব্য করেন বলে অভিযোগ। জুনেইদ হল শরিফ-কন্যা মরিয়মের ছেলে আর জাকারিয়া শরিফ-পুত্র হুসেনের ছেলে।

দাউদ ঘনিষ্ঠ ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ জঙ্গিকে পকিস্তানের হাতে তুলে দিল আমিরশাহী ]

পানামা পেপার কেলেঙ্কারি এবং ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরোর সঙ্গে অসহযোগিতার অভিযোগে গত সপ্তাহে পাকিস্তানের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ১০ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় পাকিস্তানের বিশেষ আদালত। বাবাকে সহযোগিতার অভিযোগে সাত বছরের জেল হয় শরিফ-কন্যা মরিয়মের। ২৫ জুলাই পাকিস্তানে সাধারণ নির্বাচন। তার আগেই শরিফকে গ্রেপ্তারে অন্য অঙ্ক দেখছে  আন্তর্জাতিক মহল। শরিফ অবশ্য আগেই অভিযোগ করেছিলেন, ভোটে যাতে তিনি নিজের দলকে কোনওভাবেই সাহায্য করতে না পারেন সেই জন্যই তাঁকে গারদে পুরতে চায় বিরোধীরা। বিমানবন্দর সূত্রে জানা গিয়েছে, প্লেন থেকে নামার পর ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি বু্যরোর কাছে গিয়ে বিনা প্রতিরোধে আত্মসমর্পণ করেন শরিফ ও তাঁর কন্যা। তবে শরিফ বিমানবন্দরে রেঞ্জার্সের জিপে বসতে অস্বীকার করেন।

নওয়াজ শরিফের সমর্থনে লাহোরে মিছিলের আয়োজন করে পিএমএল (এন)। মিছিলের নেতৃত্ব দেন নওয়াজের ভাই তথা দলের চেয়ারম্যান শাহবাজ শরিফ। বিমানবন্দরে শরিফ নামার সঙ্গে সঙ্গে তাঁর স্ত্রী, মা-সহ পরিবারের লোকেরা দেখা করেন। বিমানবন্দরেই তাঁর পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত হয়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে