Advertisement
Advertisement

মাদক-পানীয় খাইয়ে বিমান সেবিকাকে লাগাতার ধর্ষণ, অভিযুক্ত দুই পাইলট

বিমান সংস্থার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের৷

NY court slams Jet Blue authority for hiding rape case since 1 year
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:March 24, 2019 3:51 pm
  • Updated:March 25, 2019 7:26 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক : বছরখানেক আগে বিমান সেবিকাদের ধর্ষণের অভিযোগে শেষমেশ ২ চালকের বিরুদ্ধে দায়ের হল মামলা৷ নিউ ইয়র্কের ফেডেরাল কোর্টের বিচারক মামলার শুনানিতে প্রাথমিকভাবে জেট-ব্লু নামে বিমান সংস্থার কর্তৃপক্ষকেই খানিক ভর্ৎসনা করেছেন৷ কেন এমন ঘটনা ১ বছর ধরে ধামাচাপা দিয়ে রাখার চেষ্টা করল কর্তৃপক্ষ, প্রশ্ন তুলেছেন তা নিয়েই৷ ভবিষ্যতে মহিলা সহকর্মীদের কাজের জায়গায় নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে বলেছেন৷

আরও পড়ুন: মাসুদ আজহারের বিষয় নিয়ে চিনের সঙ্গে কথা বলেছি, স্বীকারোক্তি পাক বিদেশমন্ত্রীর]

দুটি উড়ানের মাঝে বেশ কয়েক ঘণ্টার বিরতি। তাই, নিউ ইয়র্ক থেকে রওনা হয়ে একটি বিমানটি পুয়ের্তো রিকোর সান জুয়ানে অবতরণ করার পর সময় আর নষ্ট করেননি বিমান সেবিকা৷ সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে চলে গিয়েছিলেন জেট-ব্লু সংস্থার দুই মহিলা ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট। সঙ্গে গিয়েছিলেন আরেক মহিলা সহকর্মীও। সৈকতেই দেখা দুই অপরিচিতর সঙ্গে। কথায় কথায় জানা গেল, তাঁরাও একই সংস্থায় কর্মরত, তবে চালক পদে। ব্যস! আলাপচারিতা জমে গেল৷ শুরু হল খানাপিনা৷ কিন্তু কিছুক্ষণ পরই ঘটল বিপত্তি। মাদক-মেশানো পানীয় খাওয়ায় জ্ঞান হারিয়ে ফেললেন তিন মহিলা৷ এই সুযোগের অপেক্ষাতেই ছিলেন ২ বিমান চালক৷ তিন তরুণী জ্ঞান হারানোর পর হোটেলে নিজেদের ঘরে তাঁদের নিয়ে গেলেন দুই পুরুষ। সেখানেই ধর্ষণের শিকার হলেন এক জন অ্যাটেনডেন্ট। অন্যজন একটু বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ায় কোনওক্রমে এড়ালেন অত্যাচার। আর তৃতীয় মহিলার জ্ঞান ফিরল না সারারাত কেটে যাওয়ার পরও। ঠিক এক বছর আগে,
মে মাসে ঘটেছিল এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা। ঘটনার পরদিন বিমানে তিন মহিলার সাক্ষাৎ হয়। নিজেদের অভিজ্ঞতা ‘শেয়ার’ করেন তাঁরা। আর তার পরই পরিকল্পনামাফিক জেট-ব্লু সংস্থার কাছে অভিযোগ জানান দুই অ্যাটেনডেন্ট। সংস্থার তরফে তখন আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে যথাসময়ে। কিন্তু বছর ঘুরে গেলেও দেখা গেল কোনও ব্যবস্থাই আদতে নেওয়া হয়নি। দুই বিমানচালককে শাস্তিমূলক ছুটিতেও পাঠানো হয়নি। সুবিচারের জন্য বছর খানেক অপেক্ষা করে সংস্থার বিরুদ্ধেই এবার তোপ দাগলেন ওই দুই অ্যাটেনডেন্ট।

Advertisement

আরও পড়ুন: সন্ত্রাসী হামলায় নিহত পরিবারের পাশে দাঁড়াতে প্রথা ভাঙলেন নিউজিল্যান্ডের মহিলারা]

উড়ান সংস্থার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করলেন তাঁরা। পাশাপাশি তাঁরা কাঠগড়া পর্যন্ত টেনে নিয়ে গিয়েছেন অভিযুক্ত দুই চালক, ড্যান ওয়াটসন এবং এরিক জনসনকে। এই এরিকের বিরুদ্ধেই এক বিমানসেবিকাকে মাদক মেশানো পানীয় খাইয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগ রয়েছে। অন্যজন অভিযুক্ত মাদক মেশানো পানীয় খাইয়ে ধর্ষণের চেষ্টার দায়ী। জেট-ব্লু সংস্থার বিরুদ্ধে খোরপোশ চেয়ে মামলা দায়ের করেছেন জেন ডো ১ এবং জেন ডো ২ নামে ওই দুই মহিলা অ্যাটেনডেন্ট (নাম পরিবর্তিত)। একইসঙ্গে অভিযোগ এনেছেন লিঙ্গবৈষম্যেরও। তাছাড়া দুই চালক, ওয়াটসন এবং জনসনের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়ন, বলপূর্বক স্পর্শ করার চেষ্টা এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন-সহ একাধিক ধারায় অভিযোগ দায়ের করেছেন দুই অ্যাটেনডেন্ট।

Advertisement

আরও পড়ুন: বিধ্বস্ত খিলাফত, ৪ বছরের যুদ্ধ শেষে পরাস্ত ইসলামিক স্টেট]

সোমবার নিউ ইয়র্কের ফেডারেল কোর্টে জেন ডো ১ এবং জেন ডো ২ মামলা দায়ের করেছেন। তাঁদের আইনজীবী আবে মেলামেডের মতে, “যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তা অত্যন্ত গুরুতর। দুই মহিলার সঙ্গে যে আচরণ করা হয়েছে, তা ভয়ংকর। কিন্তু তার থেকেও বড় চিন্তা এবং উদ্বেগের বিষয় হল, এই গোটা বিষয়টাকে জেট-ব্লু এর মতো সংস্থা কীভাবে বিচার করল? এক বছর ধরে বিচারের প্রতিশ্রুতি দেওয়া সত্ত্বেও দুই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও শাস্তিমূলক ব্যবস্থাই নেওয়া হল না? এটা কী করে সম্ভব?”গোটা ঘটনাটি প্রকাশ্যে চলে আসায় কার্যত চাপে পড়েই বিবৃতি দিতে বাধ্য হয়েছে জেট-ব্লু সংস্থা। তাদের তরফে আইনজীবী জানিয়েছেন, মহিলা কর্মচারীদের উপর যৌন নিপীড়নের ঘটনার তদন্ত সঠিকভাবেই করা হচ্ছে। এবং ভবিষ্যতে মহিলা কর্মীদের নিরাপদ কাজের পরিবেশ প্রদান করার ক্ষেত্রে তারা আরও সচেষ্ট এবং তৎপর হবেন বলে প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন৷

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ