BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নিউ ইয়র্ক বিস্ফোরণে বাঙালি যোগ, গ্রেপ্তার বাংলাদেশি যুবক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 12, 2017 4:05 am|    Updated: September 19, 2019 6:08 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের বাস টার্মিনাস ও নিকটবর্তী মেট্রো স্টেশনে বিস্ফোরণের ঘটনায় এবার বাংলাদেশি যোগ। পুলিশের জালে এক সন্দেহভাজন। জানা গিয়েছে, ধৃত আদতে একজন বাংলাদেশি যুবক। নাম আকায়েদ উল্লা (২৭)। বিস্ফোরণের কিছু পরেই পাকড়াও করা হয়েছে ওই যুবককে। পুলিশের সন্দেহ, সে আসলে ফিদায়েঁ জঙ্গি। যদিও ঠিকমতো বিস্ফোরণ না হওয়ায় হামলায় সে নিজেই সবচেয়ে আহত হয়েছে। ইতিমধ্যে তাকে জেরা করছে পুলিশ।

[সলমনের মতোই এবার ছবির ব্যর্থতার দায় নিলেন ‘হ্যারি’ শাহরুখ]

এর আগে সোমবার সকালে অফিস টাইমের ভিড়ে ঘটে বিস্ফোরণ। বিস্ফোরণে অল্প বিস্তর জখম হন বেশ কয়েকজন নিত্যযাত্রী। কিছুক্ষণ পরেই পুলিশ আটক করে আকায়েদকে। হামলার পরই মার্কিন হোমল্যান্ড সিকিউরিটি থেকে ঘটনার বিবরণ দেওয়া হয় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। নিউ ইয়র্ক পুলিশ জানিয়েছে, সোমবার সকালে ম্যানহাটনের পোর্ট অথরিটি বাস টার্মিনালের নীচে সাবওয়েতে স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ২০ মিনিটে এই বিস্ফোরণটি ঘটে। বিস্ফোরণ মোটেই জোরাল ছিল না। তাই ক্ষয়ক্ষতি, প্রাণহানি এড়ানো গিয়েছে। মেঘলা আবহাওয়া কনকনে ঠান্ডা সত্ত্বেও শহরের প্রাণকেন্দ্রে ছিল আর পাঁচ দিনের মতোই স্বাভাবিক ভিড়। এই সময় কেঁপে ওঠে ম্যানহাটানের ৪২ নং স্ট্রিট ও এইটথ অ্যাভিনিউ। ধোঁয়া ও আওয়াজে আতঙ্ক ছড়ায়। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থেল পৌঁছয় দমকলের কয়েকটি ইঞ্জিন, বম্ব স্কোয়াড ও পুলিশ।

[সাত পাকে বাঁধা পড়লেন বিরাট-অনুষ্কা, দেখুন ছবি]

ঘটনাস্থল থেকে আকায়েদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃত যুবক নিজের গায়ে বিস্ফোরক বোঝাই অসংখ্য তামার তার জড়িয়ে ছিল। সে বিস্ফোরণে নিজেকে উড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছিল। তার কাছ থেকে ব্যাটারির প্যাকেট, পাইপ বোমা, বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে। এরকমই একটি পাইপ বোমা ফেটেই ম্যানহাটনের সাবওয়েতে ওই বিস্ফোরণটি ঘটে বলে পুলিশের অনুমান। তবে সে ক্ষেত্রে অন্য কোনও আত্মঘাতী জঙ্গির গায়ে ওই পাইপ বোমা লাগানো ছিল কি না তা এখনও জানতে পারেনি পুলিশ। এই বিস্ফোরণ আসলে সন্ত্রাস হামলা, জানান মেয়র বিল দি ব্লাসিও। নিউ ইয়র্ক সিটি পুলিশের টুইট বার্তা, ‘‘টাইমস স্কোয়ার চত্বরে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। এই জায়গাটি এড়িয়ে চলুন।’’ উল্লেখ্য, ম্যানহাটন পৃথিবীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। বিস্ফোরণের পরই কিছুক্ষণ বন্ধ রাখা হয় ম্যানহাটনের ওই বাস টার্মিনাল এবং সাবওয়ে। পুলিশ যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে টাইমস স্কোয়ার সহ ম্যানহাটনের বিশাল এলাকা।

[নাবালিকাদের যৌন নিগ্রহের অভিযোগ, সাসপেন্ড ডিজনির আধিকারিক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement