৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইদ ও স্বাধীনতা দিবসের মধ্যে জঙ্গি হামলা হতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে গোয়েন্দাদের তরফে। এর মধ্যে শনিবার রাত থেকে কাশ্মীর সীমান্তে ইমরান সরকার বিপুল পরিমাণ অস্ত্র-সহ প্রচুর সেনা পাঠাচ্ছে বলে জানা গেল। রবিবার টুইট করে মারাত্মক এই দাবি করলেন পাকিস্তানের এক সাংবাদিক হামিদ মীর। তাঁর দাবি, ‘কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তান সরকার সেনার সংখ্যা বাড়াচ্ছে বলে খবর দিয়েছেন তাঁর কাশ্মীরি বন্ধুরা। গতকাল রাত থেকেই প্রচুর পরিমাণ অস্ত্র ও কামান নিয়ে পাকিস্তানের সেনাকর্মীরা কাশ্মীর সীমান্তে জড়ো হচ্ছে। আর তাদের দেখে পাকিস্তানের পতাকা নাড়িয়ে অভিনন্দন জানাচ্ছে স্থানীয় কাশ্মীরি। মুখে স্লোগান দিচ্ছে, কাশ্মীর বান গ্যায়া পাকিস্তান।’ এই টুইটের কথা প্রকাশ্যে আসতেই ভারতের তরফে নজরদারি চালানো হচ্ছে সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায়। বাড়ানো হয়েছে সেনা জওয়ানদের সংখ্যাও।

[আরও পড়ুন: ভুয়ো ভিডিওতে কাশ্মীরকে অশান্ত বোঝানোর চেষ্টা, বিতর্কে পাক মন্ত্রী]

জানা গিয়েছে, কোথাও ঠাঁই না পেয়ে নাকি ভারতের নাম নালিশ করতে এখন ইরানের দ্বারস্থ হয়েছে পাকিস্তান। শনিবার পাকিস্তানের স্পিকার আসাদ কায়সার ইরানের স্পিকার আলি লারিজানির সঙ্গে নাকি বিষয়টি নিয়ে টেলিফোনে কথা বলেছে।

৩৭০ ধারা বাতিল হওয়ার পর কেটে গিয়েছে এক সপ্তাহ। আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রথম কয়েকদিন রাজ্যজুড়ে জারি করা হয়েছিল ১৪৪ ধারা। কিন্তু, আস্তে আস্তে বিভিন্ন জায়গা থেকে তা প্রত্যাহার করে নেওয়া হচ্ছে। সোমবার ইদ বলে রবিবার আরও কিছু জায়গায় শিথিল করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। তবে ইদ ও স্বাধীনতা দিবসের মধ্যে জঙ্গি হামলার সম্ভাবনা থাকায় সব জায়গায় কড়া নজরদারি চালানো হচ্ছে। গত দু’দিন ধরে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছিল কাশ্মীরে ১০ হাজারের মানুষ প্রতিবাদ দেখিয়েছেন বলে।

[আরও পড়ুন: ব্যস্ত রাস্তায় উলটে গেল তেলের ট্যাঙ্কার, ভয়াবহ বিস্ফোরণে মৃত ৬১]

কিন্তু, সেই খবর পুরোপুরি মিথ্যে বলে দাবি করা হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে। এই ধরনের মিথ্যে খবরে কাশ্মীরের বাসিন্দাদের বিশ্বাস করতে নিষেধ করেছে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ। এ বিষয়ে কোনও রকম গুজব যাতে না ছড়ায় লক্ষ্য রাখতে বলা হয়েছে সেদিকেও। গত কয়েকদিন নিরাপত্তারক্ষী একটি বুলেটও ছোঁড়েননি বলে দাবি করেছে তারা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকায় জম্মুর ১০টি জেলা থেকে ১৪৪ ধারা প্রত্যাহারের কথাও জানিয়েছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং