BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ড্যানিয়েল পার্লের হত্যায় অভিযুক্ত ওমর শেখকে ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ পাক আদালতের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: December 24, 2020 4:34 pm|    Updated: December 24, 2020 4:34 pm

Pakistan court orders immediate release of Daniel Pearl murder accused Omar Sheikh | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মার্কিন সাংবাদিক ড্যানিয়েল পার্লকে (Daniel Pearl) অপহরণ ও হত্যায় অভিযুক্ত পাক জঙ্গি ওমর সঈদ শেখকে ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিল পাকিস্তানের (Pakistan) আদালত। ১৯৯৯ সালে কান্দাহারে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান ও বিমানে থাকা যাত্রীরা অপহৃত হওয়ার পর মুক্তিপণের দাবিতে যে জঙ্গিদের ছাড়া হয়েছিল তাদের অন্যতম ছিল ওমর শেখ (Omar Sheikh)।

পাকিস্তানের স্থানীয় মিডিয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী, সিন্ধ হাই কোর্ট ওমর শেখ ও তার তিন সঙ্গে ফাহাদ নাসিম, শেখ আদিল ও সলমন সাকিবকে ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে। প্রসঙ্গত, ওমর শেখকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। পরে তার প্রাণভিক্ষার আরজি মেনে সাজা কমিয়ে সাত বছরের করা হয়। গত ১৮ বছর ধরে জেলে রয়েছে ওমর। এবার তাকে ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিল আদালত।

[আরও পড়ুন: এবার দক্ষিণ আফ্রিকায় মিলল আরও বেশি সংক্রামক করোনা ভাইরাস! বাড়ছে আতঙ্ক]

কী অপরাধে অভিযুক্ত ওমর শেখ? ২০০২ সালে পাকিস্তানে এসেছিলেন ব্রিটিশ সাংবাদিক ড্যানিয়েল পার্ল। আইএসআই ও আল কায়দার মধ্যে সম্পর্ক নিয়ে তদন্ত করছিলেন তিনি। এরপরই তাঁকে অপহরণ করে ওমর। এরপর তাঁর মাথা কেটে তাঁকে নৃশংস ভাবে খুন করে সে। এর আগে ১৯৯৪ সালে চারজন বিদেশি পর্যটককে অপহরণ করে ওমর। তখন সে কাশ্মীরে ছিল। বিচারে সাজা হয় তার। গাজিয়াবাদ-সহ দেশের বিভিন্ন জেলে থাকতে হয়েছে তাকে। পরে ১৯৯৯ সালে কান্দাহার বিমান অপহরণের সময় তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় নয়াদিল্লি। প্রসঙ্গত, পাকিস্তানের জেলে থাকার সময় ২০১৪ সালে সে নাকি আত্মহত্যা করতে গিয়েছিল‌, এমনটা শোনা যায়।

১৮ বছর পরে এবছরের ২ এপ্রিল পাক আদালতে শুরু হয়েছিল ওই জঙ্গিদের আপিলের শুনানি। তখনই আদালত ওমরের মৃত্যুদণ্ড রদ করে দেয়। সেই সঙ্গে ২০ লক্ষ পাকিস্তানি টাকা জরিমানা করা হয় তাকে। যেহেতু এত দীর্ঘ সময় সে কারাবাস করেছে, তাই তার সাত বছরের সাজা এরই মধ্যে পূর্ণ হয়ে গিয়েছে। এবার তাকে ছেড়ে দেওয়ার রায় দিল আদালত।

[আরও পড়ুন: হত্যার ষড়যন্ত্রে অভিযুক্ত সৌদি যুবরাজকে রক্ষাকবচ দিতে চলেছে ট্রাম্প প্রশাসন]

সন্ত্রাসে মদতের অভিযোগে আন্তর্জাতিক আঙিন‌ায় রীতিমতো কোণঠাসা ইমরান খান সরকার। এই পরিস্থিতিতে আদালত জানিয়েছে, ওমরের মতো জঙ্গি কোনও অপরাধ না করেই জেলে রয়েছে। এদের ছেড়ে দেওয়া হোক। বরং এদের নাম ‘নো ফ্লাই’ তালিকায় রাখা হোক। যাতে এরা পাকিস্তান ছেড়ে পালাতে না পারে। ওমর শেখের মুক্তির পিছনে আইএসআইয়ের চাল দেখতে পাচ্ছে ওয়াকিবহাল মহল। গোটা বিশ্ব করোনা অতিমারীর কবলে। এই পরিস্থিতিতে আমেরিকার মতো প্রভাবশালী দেশও ব্যস্ত দেশের কোভিড সংক্রমণ নিয়ে। এই সুযোগেই এই ধরনের জঙ্গিদের মুক্তিদের পথ প্রশস্ত করতে চাইছে আইএসআই।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে