১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মাসুদ আজহারের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউণ্ট ফ্রিজ করল পাকিস্তান

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 25, 2016 4:11 pm|    Updated: January 10, 2020 3:28 pm

Pakistan freezes Masood Azhar’s Bank Account

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাঠানকোট হামলার মূলচক্রী জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিগোষ্ঠীর প্রধান মাসুদ আজহারের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউণ্ট ফ্রিজ করে দিল পাকিস্তান সরকার৷ নয়াদিল্লির চাপে কিছুটা হলেও পিছু হঠতে বাধ্য হল শরিফ প্রশাসন৷ পাক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ পাকিস্তান মাসুদ-সহ ৫১০০ জনেরও বেশি জঙ্গির ব্যাঙ্কে জমা থাকা প্রায় মোট ৪০ কোটি টাকা ফ্রিজ করে দিয়েছে৷ আন্তর্জাতিক মহলের চাপে পড়ে এই প্রথম জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ নিল নওয়াজ শরিফ সরকার৷ রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় ভারতের বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ পাকিস্তানকে জঙ্গিদের সাহায্যকারী রাষ্ট্র বলে আক্রমণ করার পর আমেরিকা, ফ্রান্সের মতো দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা শরিফ সরকারকে জঙ্গি দমনের জন্য ক্রমাগত সতর্ক করেছিল৷

এদিকে সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে পাক সরকারের কড়া পদক্ষেপের সময়েই কোয়েট্টায় পুলিশ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে হামলা চালাল তালিবানি জঙ্গিরা৷ সোমবার গভীর রাতে এই হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬০৷ নিহত হয়েছে তিন আত্মঘাতী জঙ্গিও৷ গুরুতর জখম অবস্থায় আরও ১১৮ জনের চিকিৎসা চলছে৷ ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এবং ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী মনোহর পারিক্কর৷

পাঠানকোটে বায়ুসেনা বিমানঘাঁটিতে হামলার পর মাসুদ আজহারকে বিশেষ সুরক্ষা দিয়ে নিজেদের হেফাজতে রেখেছে পাক প্রশাসন৷ পাকিস্তান স্টেট ব্যাঙ্কের এক শীর্ষ আধিকারিকের কথায়, “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশে আমরা দেশের সন্ত্রাসবাদীদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউণ্ট ফ্রিজ করে রেখেছি৷ এর মধ্যে মাসুদ আজহারের নামও রয়েছে৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষকে জঙ্গিদের নামের তিনটি তালিকা পাঠিয়েছিল৷ তার মধ্যে মাসুদের নাম ‘এ’ বিভাগে লেখা ছিল৷” ইসলামাবাদের লাল মসজিদের ধর্মগুরু মৌলানা আজিজ, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের নেতা মৌলবি আহমেদ লুধিয়ানভি, ঔরঙ্গজেব ফারুগি, তেহরিক-ই-তালিবানের মনসুর, লস্কর-ই-জাঙ্গভির রমজান মঙ্গলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউণ্টও ফ্রিজ করা হয়েছে৷

অন্যদিকে সোমবার গভীর রাতে বালুচিস্তানে কোয়েট্টার কাছে একটি পুলিশ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের হস্টেলের ভিতর জঙ্গিরা ঢুকে পড়ে৷ সংঘর্ষ বাধে হস্টেলের নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে৷ শুরু হয় গুলির লড়াই৷ সেই সময় হস্টেলে প্রায় ৭০০ জন প্রশিক্ষণরত ছাত্র ছিল৷ জঙ্গিদের গুলি ও বিস্ফোরণে নিহত হন অন্তত ৬০ ছাত্র ও নিরাপত্তারক্ষী৷ জঙ্গিরা ফোনে আফগানিস্তানের কোনও জঙ্গির সঙ্গে কথা বলছিল৷ পাকিস্তানের তালিবানের লস্কর-ই-জঙ্গভি গোষ্ঠী হামলা চালিয়েছে বলে পাক পুলিশের সন্দেহ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে