৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের উক্তি ‘চুরি’ করে হাসির খোরাক হয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এবার সেই পথে হেঁটেই বাস্তব ভেবে ভিডিও গেমের দৃশ্য পোস্ট করে ট্রোলড হলেন ওই দেশেরই এক মন্ত্রী।

‘জিটিএ ফাইভ’ গেমের একটি ভিডিওকে বাস্তবের ঘটনা ভাবলেন পাক মন্ত্রী খুররম নওয়াজ। বিরোধী দল পাকিস্তান আওয়ামি তেহরিক-এর সভাপতি তিনি। ভিডিওটিকে বাস্তব ভেবে পাইলটের প্রশংসা করে টুইটারে পোস্ট করলেন সেই ভিডিও। এক মন্ত্রীর এহেন মূর্খামিতে রীতিমতো হাসির রোল ওঠে নেটদুনিয়ায়। তারপরই টনক নড়ে মন্ত্রী খুররম নওয়াজের। ভুল বুঝতে পেরে তড়িঘড়ি টুইটটি মুছে দেন তিনি। যদিও ততক্ষণে টুইটটির ছবি তুলে, তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করে দেন নেটিজেনরা।

[ আরও পড়ুন: গোলিয়াধ-বধ করা নায়ক ডেভিডের গ্রাম কোথায়? বাইবেলের পাতা পেরিয়ে বাস্তবে মিলল উত্তর]

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, রানওয়েতে নেমে আসছে একটি প্লেন। হঠাৎই সেই প্লেনের সামনে এসে পড়ল জ্বালানির ট্যাঙ্কার। সংঘর্ষ এড়াতে নিমেষে প্লেনটিকে নিয়ে রানওয়ে না ছুঁয়েই, ফের আকাশে উড়ান ভরেন পাইলট। তবে একটু খুঁটিয়ে দেখলেই সাফ বোঝা যায় সবই আধুনিক গ্রাফিক্সের খেলা। প্লেনটির ওড়া বা ধোঁয়া দেখলেই বোঝা যায় সেটি কোনও গেমের দৃশ্য। তবে সেই বিষয়টি খেয়াল করেননি বা করার মতো যুক্তি খুঁজে পাননি ওই পাক মন্ত্রী। উন্নত গ্রাফিক্সের কাজ দেখে তা বাস্তব ভেবে বসেন পাক মন্ত্রী। ভাবলেন পাইলটের তৎপরতায় বড়সড় দূুর্ঘটনা থেকে বাঁচলেন অনেক মানুষ। ভিডিওর ক্যাপশনে লিখলেন, “অল্পের জন্য সাংঘাতিক বিপদ থেকে বাঁচল বিমান। পাইলটের সতর্কতায় এড়ানো গেল দুর্ঘটনা।” এর পরেই তাঁকে ট্রোল করতে শুরু করেন নেটিজেনরা। অনেকে বললেন, ‘পাইলটের সতর্কতা নাকি আপনার অসতর্কতা, তা আগে ঠিক করুন।’

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই সাহিত্যপ্রেমী হতে গিয়ে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান৷ নিজের টুইটারে বিশ্ববরেণ্য রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটি উক্তি পোস্ট করেছিলেন৷ আর ঋণস্বীকারে লিখেছিলেন অন্য এক বিখ্যাত সাহিত্যিকের নাম!     

দেখুন ভিডিও:       

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং