BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

নয়া সালোকসংশ্লেষে সূর্যালোক থেকে জ্বালানি তৈরি বিজ্ঞানীদের!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 31, 2016 5:17 pm|    Updated: July 31, 2016 5:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এই প্রকৃতির ভিতরই নাকি প্রাকৃতিক বিপর্যয় মোকাবিলার সমস্ত পদ্ধতি লুকিয়ে আছে৷ সন্ধানী চোখ তা শুধু খুঁজে বের করে৷ এবার সেভাবেই গাছেদের সালোকসংশ্লেষ পদ্ধতি থেকেই জ্বালানি তৈরির পদ্ধতি উদ্ভাবন করলেন বিজ্ঞানীরা৷

সভ্যতা যত এগিয়েছে তত দেখা দিয়েছে সমস্যা৷ মানুষ নিজের মতো করে তা মোকাবিলার চেষ্টা করেছে৷ আর তা করতে গিয়ে প্রাকৃতিক বিভিন্ন পদ্ধতি থেকেই উপায় খুঁজে বের করেছে৷ যেমন কিছুদিন আগেই বিজ্ঞানীরা খেয়াল করেছিলেন, নারিকেলের মধ্যেই আছে ভূমিকম্প প্রতিরোধের নকশা৷ সমস্ত প্রতিঘাত ব্যাহত করে যেভাবে শস্য ঠিক থাকে নারিকেলের মধ্যে, তন্তুর সেই বিন্যাসকেই দেওয়াল তৈরির কাজে লাগানো যায় কি না সে ভাবনা ভাবছেন বিজ্ঞানীরা৷

এবার সে পথে হেঁটেই গাছেদের সালোকসংশ্লেষ পদ্ধতির অনুকরণে জ্বালানি তৈরিতে মিলল সাফল্য৷ সবুজ পাতা ক্লোরোফিলের উপস্থিতিতে যেভাবে সূর্যালোকের শক্তিকে খাদ্যবস্তুতে রূপান্তরিত করত এবার সে পদ্ধতিই নেওয়া হয়েছে জ্বালানি তৈরিতে৷ সূর্যালোক ও কার্বন-ডাই-অক্সাইডকে কাজে লাগিয়ে তৈরি করা হচ্ছে হাইড্রোকার্বন জ্বালানি৷ যা করছে বিজ্ঞানীদের তৈরি কৃত্রিম পাতা৷ আসলে যা এক বিশেষ ধরনের সোলার সেল৷ এর মধ্যে আছে সিলিকন-ট্রিপল জাংশন ফটোভোল্টিক সেল৷ এবার রাসায়নিক বিক্রিয়ায় সূর্যালোক ও কার্বন ডাই অক্সাইডের বিক্রিয়ায় অবিকল সালোকসংশ্লেষের মতো মুক্তি পাচ্ছে অক্সিজেন ও তৈরি হচ্ছে জ্বালানি৷

কীভাবে এই আবিষ্কারে উপকার হবে মানবসভ্যতার? ক্রমশ প্রচলিত শক্তির ভাণ্ডার শেষ হয়ে আসছে৷ জোর দেওয়া হচ্ছে অপ্রচলিত শক্তির ব্যবহারে৷ এই আবিষ্কার সেই শক্তির জোগান তো দেবেই উপরন্তু পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণেও বিশেষ ভূমিকা পালন করবে৷ এই গবেষণার কথা প্রকাশিত হয়েছে বিখ্যাত ‘সায়েন্স’ পত্রিকায়৷ মার্কিনমুলুকের ‘ন্যাশনাল সায়েন্স ফাউন্ডেশন’ গবেষণাটি চালানোর অর্থ প্রদান করেছে৷ আবিষ্কারটির পেটেন্ট নিয়ে তা জনকল্যাণে ব্যবহারেরও পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement