২৯ চৈত্র  ১৪২৭  সোমবার ১২ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ট্রাম্পের বিমান ঘেঁষে বেরিয়ে গেল ড্রোন, অল্পের জন্য রক্ষা পেল ‘এয়ারফোর্স ওয়ান’

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 18, 2020 5:11 pm|    Updated: August 18, 2020 5:11 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অল্পের জন্য বড়সড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ‘এয়ারফোর্স ওয়ান’-এর ‘দুর্ভেদ্য’ নিরাপত্তা বলয় ভেদ করে বিমানটির গা ঘেঁষে বেরিয়ে যায় একটি রহস্যজনক ড্রোন।

[আরও পড়ুন: এই না হলে রাষ্ট্রনায়ক! দুই ডুবন্ত মহিলাকে বাঁচালেন পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি, ভিডিও ভাইরাল]

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাতে। সেদিন ওয়াশিংটনের কাছে মেরিল্যান্ডে জয়েন্ট বেস অ্যান্ড্রিউজে বিমানটি অবতরণ করছিল৷ ঠিক সেই সময় ছোট্ট ড্রোনটি বিপজ্জনকভাবে ‘এয়ারফোর্স ওয়ান’-এর এতটাই কাছে চলে এসেছিল যে ওই বিমানে থাকা অনেকেরই সেটি নজরে পড়ে৷ সেই সময় বিমানে ছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও (Donald Trump)৷ বিমানে সওয়ার প্রেসিডেন্টের স্টাফদের অনেকেই জানিয়েছেন, কালো এবং হলুদ রংয়ের ড্রোনটির আকার ছিল ক্রসের মতো৷ ঘটনার কথা স্বীকার করেছে মার্কিন বায়ুসেনার ৮৯ নম্বর এয়ারলিফট উইং৷ সোমবার তারা জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত করে দেখা হচ্ছে৷ বিশেষজ্ঞদের মতে, মার্কিন প্রেসিডেন্টের জন্য বিশেষভাবে তৈরি বিশাল আকৃতির বোয়িং ৭৫৭ বিমানটি একটি দুর্গের মতোই। তবে মাঝ আকাশে বিমানের ইঞ্জিনে সামান্য পাখির ধাক্কাও মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে। এভিয়েশন বা বিমান পরিবহণের ইতিহাসে এমন দুর্ঘটনাত বহু নজির রয়েছে।

উল্লেখ্য, বহুদিন ধরেই এই ধরনের ড্রোন (Drone) ওড়ানোর উপরে নিয়ন্ত্রণ জারি করার দাবি জানিয়ে আসছে মার্কিন নিরাপত্তা সংস্থাগুলি৷ কারণ কারা এই ধরনের ড্রোন ওড়াচ্ছেন, কী তাদের উদ্দেশ্য, সে সম্পর্কে সহজে কোনও তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না৷ রবিবার খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিমান ড্রোনের সঙ্গে সংঘর্ষ এড়ানোর পর ফের একবার বিষয়টি নিয়ে তোড়জোড় শুরু হয়েছে৷ এদিকে, খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্টের ‘দুর্ভেদ্য’ নিরাপত্তা বলয় কীভাবে ভেদ হয়ে গেল তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিমানটি সহজেই মিসাইল হানা এড়াতে সক্ষম। রয়েছে সেলফ প্রোটেকশন স্যুট। বিমানগুলিতে রয়েছে সেলফ প্রোটেকশন স্যুট (SPS). এয়ারক্রাফ্ট ইনফ্রারেড কাউন্টার মেসার্স, অত্যাধুনিক ডিফেন্সিভ ইলেকট্রনিক ওয়ারফেয়ার স্যুট এবং কাউন্টার মেসার্স ডিসপেন্সিং সিস্টেম৷ এতে রয়েছে অত্যাধুনিক ও সুরক্ষিত যোগাযোগ ব্যবস্থা। যার মাধ্যমে মাঝ-আকাশ থেকেও নিরবিচ্ছিন্ন অডিও ও ভিডিও যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব। পাশাপাশি, এই বিমানের নেটওয়ার্ক হ্যাক করা সম্ভব নয় বলেই দাবি করা হয়। এতো কিছুর পরও কীভাবে ড্রোনটি ‘এয়ারফোর্স ওয়ান’-এর কাছে চলে এল তা নিয়ে শুরু হয়েছে তদন্ত।

[আরও পড়ুন: আস্থা রুশ করোনা ভ্যাকসিনেই, টিকা নেবেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement