৮ ফাল্গুন  ১৪২৬  শুক্রবার ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পদক্ষেপকে সমর্থন জানালেই ভারতে ফেরার ব্যবস্থা করে দেওয়া হত তাঁকে। তুলে নেওয়া হত তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া সমস্ত মামলা। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি ভিডিও পোস্ট করে এই চাঞ্চল্যকর দাবিই করলেন বিতর্কিত ইসলামিক ধর্মগুরু জাকির নায়েক (Zakir Naik)।

ওই ভিডিওতে জাকির নায়েক আর দাবি করেন, ‘জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পরেই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের প্রতিনিধি আমার সঙ্গে দেখা করে প্রস্তাব দেয় এই ইস্যুতে কেন্দ্রের পাশে দাঁড়াতে। এর স্বপক্ষে মুখ খুলতে। তাহলে আমার ভারতে ফেরার সমস্ত বাধা দূর হবে। দায়ের হওয়া মামলাগুলিও তুলে নেওয়া হবে। এর পাশাপাশি আমার সমস্ত যোগাযোগকে কাজে লাগিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল করতে চেয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু, আমি এই কাজ করতে অস্বীকার করেছি।’

[আরও পড়ুন: ট্রাম্পের যুদ্ধ জিগির রুখতে ‘ট্রাম্প কার্ড’ ফেলল মার্কিন কংগ্রেস]

ভারত সরকারের ওই প্রতিনিধির সঙ্গে আলোচনার পর তিনি অবাক হয়ে গিয়েছিলেন বলেও দাবি করেন জাকির নায়েক। এপ্রসঙ্গে বলেন, ‘ওই আধিকারিক আমাকে জানিয়েছিলেন আমার সঙ্গে কথা বলার আগে এই বিষয়ে তাঁর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কথা হয়েছে। তাঁরা এই বিষয়ে আমার সাহায্য চেয়েছেন। তাঁর এই কথা শুনে প্রথমে হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম আমি। যে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের সময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে দু’মিনিটে ৯ বার আমার নাম নিচ্ছিলেন। তাঁর এই ভোলবদল দেখে চমকে গিয়েছিলেন।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং