১১ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১১ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পদত্যাগ করল রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী-সহ গোটা মন্ত্রিসভা। আচমকা এমন ঘোষণায় হতচকিত গোটা বিশ্ব।রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি সংবিধান সংশোধনের কথা ঘোষণা করার পরই ইস্তফা দেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি  দেশের মানুষের চাহিদাপূরণ করতে না পারায় গোটা মন্ত্রিসভার উপর অখুশি ছিলেন রাষ্ট্রপতি। প্রধানমন্ত্রী পদের পরবর্তী দায়িত্ব দেশের অর্থমন্ত্রী, এমনটাই খবর। সূত্রের খবর, রাশিয়ার আর্থিক পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপ হচ্ছে। পাশাপাশি জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের হারও স্তিমিত। ফলে সরকারের বিরুদ্ধে দেশবাসীর মনে ক্ষোভ ক্রমাগত বাড়ছিল। এমন পরিস্থিতিতে পদত্যাগ করল রাশিয়ার মন্ত্রিসভা।

দেশে একগুচ্ছ সংবিধানিক সংস্কারের ঘোষণা করেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন। তারপরই তার কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রিয় মেদেভদেভ। সূত্রের খবর, দেশের অগ্রগতিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করতে পারেনি এই মন্ত্রিসভা। তাই তাদের পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছিলেন খোদ পুতিনই। এরপরই ইস্তফা দিলেন প্রধানমন্ত্রী-সহ বাকিরা। বুধবার জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন পুতিন। সেখানে দেশের সাম্প্রতিক অবস্থা, দেশবাসীর জীবনযাত্রা-সহ একাধিক বিষয় নিয়ে কথা বলেন। কিন্তু গত কয়েকবছরে দেশের মানোন্নয়ন হয়নি বলে্ও আক্ষেপ করেন পুতিন। দেশের সরকারের বিরুদ্ধে দেশবাসীর মনে ক্ষোভ জমছিল। দিমিত্রিয় সরকার মানুষের দেশের উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য কাজ করতে পারেনি বলে অভিযোগ ওঠে। এরপরই এদিন চমকে দেওয়া সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন দিমিত্রিয়।

[আরও পড়ুন : বোয়িং ৭৩৭ বিমান দুর্ঘটনায় গ্রেপ্তার ইরানের মিসাইল অপারেটর  ]

বুধবার এক অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমি পুতিন ও দিমিত্রিয় মেদেভদেভ। সেখানে ‘সাংবিধানিক সংস্কারের’ কথা ঘোষণা করেন পুতিন। তিনি ইঙ্গিত দেন রাশিয়ার সংবিধানের মৌলিক কাঠামোয় বদল আনবেন। তারপরই সরকার থেকে প্রধানমন্ত্রী ও বাকিদের ইস্তফার কথা ঘোষণা করেন। পুতিন বিদায়ী সরকারকে ধন্যবাদ জানালেও তাঁদের কাজের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেন। পুতিন জানান, জনসাধারণের আশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর নেতৃত্বাধীন সরকার। এ প্রসঙ্গে দিমিত্রিয় বলেন, “এই পরিস্থিতিতে আমার মনে হয় সরকারের পদত্যাগ করা উচিৎ।” পরিসংখ্যান বলছে, ডলার তুলনায় অনেকটাই পড়েছে রাশিয়ান মুদ্রা রুবেলের দাম। এদিন বিকেলেও সেই ধারা বজায় ছিল। তারপরই মন্ত্রিসভা পদত্যাহ করেন।      

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং