২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক : কখনও কোনও বার, কখনও রেস্তোরাঁ বা কোনও ধর্মীয়স্থল। আমেরিকায় বন্দুকবাজদের হামলা ক্রমে বেড়েই চলছে। এবারে ক্যালিফোর্নিয়ার হাইস্কুলে হামলা চালালো বন্দুকবাজ। জানা গিয়েছে হামলা চালানো বন্দুকবাজ নিজেও পড়ুয়া। হামলায় মৃত্যু হয়েছে দুই ছাত্রের। আহত হয়েছেন তিনজন।

লস এঞ্জেলসের কাউন্টি শেরিফ জানিয়েছেন, বন্দুকবাজের বয়স খুব বেশি হলে ১৬ বছর। শেরিফ নিজেও গুলিতে আহত হয়েছেন। সবমিলিয়ে ৫ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। যে দুই ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে তাদের বয়স ১৪ ও ১৬। ঘাতক নিজেকেও গুলি করে নিজেকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছিল। আপাতত গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভরতি রয়েছে সে। কিন্তু কেন সে এমন কাণ্ড ঘটাল তা জানা যায়নি। ঘটনার পর এলাকার বাকি স্কুলেও ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন : আরও বিপাকে কুলভূষণ, আইন সংশোধনের দাবি উড়াল পাকিস্তান]

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল আটটা নাগাদ ঘটে ওই ঘটনা। দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান্টা ক্ল্যারিটায় সওগাস হাইস্কুলে ঢুকে গুলি চালাতে শুরু করে বন্দুকবাজ ছাত্র। ওই স্কুলের এক ছাত্র জানিয়েছে, সে তখন ক্লাসে বসে পড়াশোনা করছিল। আচমকা তার কানে আসে চারটি গুলির আওয়াজ। চমকে যায় সে। প্রথমে সে বিশ্বাস করেনি যে বীভৎস ওই আওয়াজ গুলির। ভেবেছিল স্কুলে ব্যান্ডের জ্যামিং সেশন হচ্ছে। পরে ঘটনাটি তাঁর কাছে স্পষ্ট হয়। ততক্ষণে স্কুলের মধ্যে ঘটে গিয়েছে ভয়ংকর ঘটনা।

অপর এক পড়ুয়া দাবি করেছে, সে তখন লাইব্রেরির কাছেই ছিল। তখন সে গুলির শব্দ পায়। তারপরেই স্কুলে ছাত্রছাত্রীদের হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায়। পড়ুয়ারা জানাচ্ছে, ‘আমেরিকায় বন্দুকবাজের হামলার ঘটনা তারা খবরে দেখেছে কিন্তু নিজেদের স্কুলে এমন বীভৎস ঘটনার সাক্ষী থাকতে হবে তা তারা ভাবেনি।’ আতঙ্কে রয়েছেন স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারাও।

[আরও পড়ুন :সন্ত্রাসবাদে ক্ষতি ১ লক্ষ কোটি ডলার, ব্রিকসে ভয়াবহ চিত্র তুলে ধরলেন মোদি]

চলতি বছরের জুলাই মাসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার গিলরয়ে একটি জনপ্রিয় ফুড ফেস্টিভ্যালে হামলা চালিয়েছিল এক বন্দুকবাজ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছিল ৩ জনের। ১২ জন গুরুতর আহত হন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং