BREAKING NEWS

৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৪ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

চিনের সঙ্গে সংঘাতের আবহে মাঝ আকাশ থকে উধাও তাইওয়ানের এফ-১৬ যুদ্ধবিমান

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 19, 2020 8:29 am|    Updated: November 19, 2020 8:29 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনের (China) সঙ্গে সংঘাতের আবহে মাঝ আকাশ থকে উধাও তাইওয়ানের এফ-১৬ যুদ্ধবিমান। দেশটির বায়ুসেনা জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে একটি প্রশিক্ষণ অভিযানের অন্তর্গত ডানা মেলেছিল এফ-১৬ ফাইটার জেটটি। কিন্তু টেকঅফ করার মিনিট দুয়েক পরেই রাডার থেকে হারিয়ে যায় বিমানটি।

[আরও পড়ুন: পাক সেনার আল কায়দা যোগ থেকে লাদেন হত্যা, আত্মজীবনীতে অকপট ওবামা]

তাইওয়ানের (Taiwan) প্রতিরক্ষামন্ত্রক জানিয়েছে, হুয়ালিয়েন শহরের বায়ুসেনার ঘাঁটি থেকে রওনা দিয়েছিল এফ-১৬ বিমানটি। এখনও পর্যন্ত সেটির কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি। পাইলটের সঙ্গেও যোগাযোগ স্থাপন করা যায়নি। তবে ইতিমধ্যেই সাগরে ও আশেপাশের অঞ্চলে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে সেনা। এই ঘটনার পর আমেরিকার নির্মিত এফ-১৬ বিমানগুলিকে আপাতত বসিয়ে রাখা হয়েছে। প্রসঙ্গত, ১৯৯০ সালে আমেরিকা থেকে আধুনিক এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ক্রয় করেছিল তাইওয়ান। তারপর থেকে লাগাতার বিমানগুলির আধুনিকীকরণ করা হয়েছে। এহেন পরিস্থিতিতে একটি বিমান উধাও হয়ে যাওয়ায় রীতিমতো উদ্বেগ ছড়িয়েছে তাইপেইর প্রতিরক্ষা মহলে।

উল্লেখ্য, তাইওয়ান ও চিনের (China) মধ্যে ক্রমেই বাড়ছে যুদ্ধের সম্ভাবনা। শি জিনপিংয়ের আমলে বারবার তাইওয়ান দখল করার হুমকি দিচ্ছে বেজিং। কয়েকদিন আগেই দ্বীপরাষ্ট্রটিতে মার্কিন প্রতিনিধির সফর নিয়ে তুমুল আপত্তি জানায় চিন, শুধু তাই নয়, তাইওয়ানের বায়ুসীমায় ঢুকে পড়ে লালফৌজের যুদ্ধবিমান। পালটা, তাইপেইও হুমকি দিয়েছে চিন হামলা চললে পালটা জবাব দেবে দেশের সেনাবাহিনী। এনিয়ে বেশ কয়েকবার সামরিক মহড়াও চালিয়েছে দেশটি। পরিস্থিতি ঘোরাল করে এক রিপোর্টে জানা যায়, গত অক্টোবর মাসে গুয়াংডং সামরিক ঘাঁটিতে যান চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। সেখানে সৈনিকদের যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন তিনি। পাশাপাশি, ওই অঞ্চল থেকে পুরনো ডিএফ-১১ ও ডিএফ-১৫ ক্ষেপণাস্ত্র সরিয়ে অত্যাধুনিক ডিএফ-১৭ হাইপারসনিক মিসাইল মোতায়েন করেছে চিন। অত্যন্ত নিখুঁতভাবে ও অনেক বেশি দূরত্বে আঘাত হানতে সক্ষম এই নয়া চিনা মিসাইলটি। কানাডা স্থিত ‘Kanwa Defence Review’-এর প্রকাশিত স্যাটেলাইট চিত্রে দেখা যাচ্ছে ফুজিয়ান ও গুয়াংডং অঞ্চলে ম্যারিন কোর ও রকেট ফোর্সের সংখ্যা বাড়িয়ে চলেছে বেজিং।

[আরও পড়ুন: আজারবাইজানের সঙ্গে বিতর্কিত শান্তিচুক্তির জের, পদত্যাগ আর্মেনিয়ার বিদেশমন্ত্রীর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement