BREAKING NEWS

৮ শ্রাবণ  ১৪২৮  রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

আফগানিস্তানে নিহত ভারতীয় চিত্র সাংবাদিকের মৃত্যুতে দুঃখপ্রকাশ করেও দায় নিল না Taliban

Published by: Biswadip Dey |    Posted: July 17, 2021 6:32 pm|    Updated: July 17, 2021 6:32 pm

Taliban denies killing Indian journalist Danish Siddiqui, express regret over his death | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক : তালিবান জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে আফগান সেনার সঙ্গে সংঘর্ষের মধ্যে পড়ে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন পুলিৎজার (Pulitzer Prize) পুরস্কারজয়ী রয়টার্সে কর্মরত ভারতীয় চিত্র সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকি (Danish Siddiqui)। আফগানিস্তান (Afghanistan) থেকে মার্কিন সেনা সরতে শুরু করতেই সেদেশের দখল নিয়েছে তালিবানরা (Taliban)। এই পরিস্থিতিতে সেখান‌কার উত্তপ্ত সংঘর্ষকে লেন্সবন্দি করতে গিয়ে একজন চিত্র সাংবাদিকের এমন মৃত্যুতে শোকাহত সংবাদ জগৎ। এই পরিস্থিতিতে তালিবানের তরফে সিদ্দিকির মৃত্যুতে দুঃখপ্রকাশ করে জানিয়ে দেওয়া হল, মুম্বইয়ের ওই সাংবাদিকের গুলিবিদ্ধ হওয়ার বিষয়ে তারা কিছুই জানত না।

সিএনএন-নিউজ ১৮-এর সঙ্গে কথা বলার সময় তালিবান মুখপাত্র জাবিউল্লা মুজাহিদ বলেন, ‘‘আমরা একেবারেই অবগত নই কে ওঁকে গুলি মেরেছে। কী করে উনি মারা গেলেন সেবিষয়ে আমাদের কিছু জানা নেই।’’ সিদ্দিকির মৃত্যুতে দুঃখপ্রকাশ করেও তিনি জানান, সংঘর্ষ ক্ষেত্রে প্রবেশের আগে জানানো উচিত ছিল সিদ্দিকির।

[আরও পড়ুন: গাড়ি থেকে উদ্ধার পর্নস্টারের রক্তাক্ত দেহ, আত্মহত্যা না খুন? ধন্দে পুলিশ]

তাঁর কথায়, ‘‘যে কোনও সাংবাদিকেরই উচিত যুদ্ধক্ষেত্রে ঢোকার আগে আমাদের তা জানানো। তাহলে আমরা তাঁর আলাদা খেয়াল রাখব। আমাদের আফশোস, সাংবাদিকরা কাউকে না জানিয়েই সংঘর্ষের এলাকায় ঢুকে পড়ছেন। নিহত ভারতীয় সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকির মৃত্যুতে আমরা দুঃখিত।’’
উল্লেখ্য, সংবাদসংস্থা রয়টার্সের হয়ে পেশার খাতিরে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্থানের স্পিন বলদাক এলাকায় কাজ করছিলেন দানিশ। মাঝমধ্যেই আফগান সেনা-তালিবানদের সংঘর্ষের ছবি, যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্থানের ছবি তুলেও পাঠাচ্ছিলেন। কিন্তু সেই কাজের ফাঁকেই সংঘর্ষের মধ্যে প্রাণ হারান দানিশ। ২০১৯ সালেই বিখ্যাত পুলিৎজার পুরস্কার জিতেছিলেন দানিশ। মায়ানমারে রোহিঙ্গাদের নিপীড়নের ছবি তুলে এই পুরস্কার পেয়েছিল রয়টার্সের চিত্র সাংবাদিকের একটি দল। সেই দলেই ছিলেন দানিশ।

এদিকে আফগানিস্তানে ক্রমেই মজবুত হচ্ছে তালিবানের থাবা। সে দেশের ৮৫ শতাংশ এলাকার দখল নিয়ে ফেলেছে বলে দাবি করেছে তালিবানরা। ইতিমধ্যে কান্দাহারের পর রাজধানী কাবুলের আরও কাছাকাছি চলেও এসেছে তালিবান জঙ্গিগোষ্ঠী। ঘাঁটি শক্ত করছে লস্কর-ই-তইবাও।

[আরও পড়ুন: যুদ্ধ ও রোগের জোড়া ফলা বিঁধেছিল এথেন্সকে, আজও রহস্যে মোড়া ইতিহাসের প্রথম মহামারী]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement