BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পরমাণু হামলা চালাবে জেহাদিরা, বিপদে ভারত

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 1, 2016 10:06 am|    Updated: October 1, 2016 10:06 am

Terrorist May Attack The World, Hilary Clinton Worried About The Fact

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার জেহাদিদের হাতে চলে যেতে পারে যে কোনও সময়৷ তারপর তা নিয়ে তারা আত্মঘাতী হামলা চালাতে পারে যে কোনও জায়গায়৷ এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন হিলারি ক্লিনটন৷ পাক প্রতিরক্ষামন্ত্রী খোয়াজা মহম্মদ আসিফ দিন দুয়েক আগে ভারতে পরমাণু হামলার হুমকি দেওয়ায় গুরুত্বপূর্ণ ও প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠল হিলারির সেই আশঙ্কা৷
ফেব্রূয়ারি মাসে ভার্জিনিয়ায় ডেমোক্র্যাটিক পার্টির একটি তহবিল সংগ্রহ অভিযানের সময় দলীয় নেতাদের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছিলেন তিনি৷ সেখানেই আলোচনার সময় পাকিস্তানের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার নিয়ে এই আশঙ্কা প্রকাশ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি৷ সেই সময় হিলারি যা বক্তব্য রেখেছিলেন সেই বক্তব্যের অডিও টেপটি সম্প্রতি ফাঁস হয়েছে৷ ডেমোক্র্যাটিক পার্টির দফতরে রাখা কম্পিউটার থেকে তথ্য হ্যাক করার সময় হ্যাকারের মাধ্যমে কোনওভাবে ফাঁস হয়ে যায় টেপটি৷ অডিও টেপে থাকা হিলারির বক্তব্যের সেই বয়ান ছেপেছে দি নিউ ইয়র্ক টাইমস৷ তাতেই ধরা পড়েছে পাকিস্তানের পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার নিয়ে তাঁর উদ্বেগ ও সন্দেহ৷ পাক পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে আমেরিকার যে বিন্দুমাত্র ভরসা ও বিশ্বাস নেই তা স্পষ্ট জানিয়েছেন হিলারি৷
সম্প্রতি ওবামা প্রশাসনের শীর্ষ কর্তা তথা মার্কিন প্রতিরক্ষাসচিব অ্যাস্টন কার্টার পরিষ্কার বলেছেন, পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার ও কর্মসূচি নিয়ে ভারতের যে দায়বদ্ধতা ও সংযমী ভূমিকা রয়েছে পাকিস্তানের তা নেই৷ তাই আমেরিকা ও দুনিয়ার চোখে পাকিস্তানের পরমাণু কর্মসূচির ভবিষ্যত্‍ নিয়ে আশঙ্কা রয়েছে৷ কার্টারের এই আশঙ্কা অনেক আগেই প্রকাশ করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিলারি৷ হিলারি সাফ জানিয়েছিলেন, “আমরা পাকিস্তানে অভ্যুত্থানের আশঙ্কা করছি৷ সরকারকে ফেলে দিয়ে সামরিক মদতে ক্ষমতা দখল করবে পাক জেহাদিরা৷ তারপর তারা দখল করবে পরমাণু অস্ত্রভাণ্ডার৷ একবার ‘ফ্রি অ্যাকসেস’ পেয়ে গেলে পরমাণু অস্ত্র নিয়ে তারা আত্মঘাতী হামলা চালাবে বিশ্বের যে কোনও জায়গায়৷ তখন সংকটে পড়ে যাবে গোটা মানব সভ্যতাই৷” ‘দি ওয়াশিংটন ফ্রি বিকন’ ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়েছে হিলারির বক্তব্য সংক্রান্ত অডিওটি৷ এই অডিওতে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ ও নিউক্লিয়ার ওয়ারহেড তৈরি নিয়ে রাশিয়া, চিন, ভারত, পাকিস্তান ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে যে প্রচণ্ড প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে, সে ব্যাপারে গভীর দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেছেন হিলারি৷ হিলারি বলেছেন, ভারতের সঙ্গে সংঘাতের সূত্র ধরে যেভাবে পরমাণু অস্ত্র ভাণ্ডার বাড়িয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান তা চরম বিপদ ডেকে আনবে৷
এদিকে, ভারতীয় কমান্ডোদের সফল জঙ্গি নিধনের অভিযানের পর লস্কর-ই-তৈবা প্রধান তথা মুম্বইয়ে জঙ্গি হামলার মাস্টারমাইন্ড হাফিজ সঈদ শুক্রবার হুমকি দেন, “সার্জিক্যাল স্ট্রাইক কাকে বলে এবার ভারতকে তা দেখিয়ে দেব৷ পাক সেনাও সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করতে জানে৷ এমন আঘাত হানা হবে, ইনশা আল্লা আমেরিকাও তখন ভারতকে সাহায্য করতে পারবে না৷” অন্যদিকে, প্রাক্তন মার্কিন বিদেশসচিব হিলারির আশঙ্কা সত্যি করেই ভারতে পরমাণু হামলার হুমকি দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা সচিব খোয়াজা মহম্মদ আসিফ৷ আসিফ হুমকি দিয়েছেন, “আমাদের নিরাপত্তা বিপন্ন হলেই আমরা ভারতকে নিশ্চিহ্ন করার জন্য পরমাণু হামলা চালাব৷”
আসিফের হুমকির তীব্র নিন্দা করে আমেরিকা ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন৷ কয়েকটি পশ্চিমি খবরের কাগজ তাঁর ‘কাণ্ডজ্ঞান’ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে৷ ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলি তাঁকে কটাক্ষ করে, “আসিফ কী ভুলে গেলেন ভারতও পরমাণু শক্তিধর দেশ? এবং পাকিস্তানকে নিশ্চিহ্ন করে দিতে ভারতের বেশিক্ষণ লাগবে না!”
ভারতের সার্জিক্যাল স্ট্রাইককে সমর্থন করে মার্কিন মিডিয়ায় আসিফের সমালোচনা করা হয়েছে, পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য হিলারি ও অ্যাস্টন কার্টারের আশঙ্কাকেই সত্যি প্রমাণ করেছে৷ ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে, পাকিস্তান সন্ত্রাসে মদত দেওয়ার নীতি বন্ধ না করলে তারা দুনিয়া থেকে আরও বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে৷ তখন ‘বিচ্ছিন্ন পাকিস্তান’ নিয়ে গোটা দুনিয়ার বিপদ আরও বেড়ে যাবে৷ ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে লেখা হয়েছে, দক্ষিণ এশিয়ায় হিংসা ও অশান্তির মূল উৎস হল পাক মদতপুষ্ট সন্ত্রাস ও জেহাদ৷ জৈশ, লস্কর, হরকত-উল-আনসার, তালিবানের মতো সংগঠনগুলির বিরু‌দ্ধে পাকিস্তান সরকার যতক্ষণ কার্যকরী ব্যবস্থা না নিচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত দক্ষিণ এশিয়ায় বিপদ বাড়তেই থাকবে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে