BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নিতম্বে ক্রিম লাগানোর ভিডিও ভাইরাল, গ্রেপ্তার মডেল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 15, 2018 2:43 pm|    Updated: September 18, 2019 11:08 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফেয়ারনেস ক্রিমের কুফল দেখাতে গিয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। পরিণতি হাতনাতে টের পেলেন তাইল্যান্ডের মডেল। সোজা ঠাঁই হল জেলে। তাও আবার অশ্লীলতার দায়ে।

[একটানা মাথাব্যথায় ভুগছেন! ফাইব্রোমায়ালজিয়া নয় তো?]

কী এমন করেছিলেন নিত্থাকার্ন নামের ২৫ বছরের তরুণী? একটি ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপন করছিলেন। তবে মুখের নয় নিতম্বের। এর জন্য নিজের নিতম্বে ক্রিমটি লাগিয়ে দর্শকদের দেখান, সেটির ব্যবহারে নিতম্বের রং কতখানি আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে। ইউটিউবে আপলোড করা হয় সে ভিডিও। ভাইরাল হতে বেশি সময় লাগেনি।

[ইউটিউবে বিতর্কিত ভিডিও আপলোড করে মুখ পুড়ল এই তারকার]

এই ভিডিওর জন্যই বিপাকে পড়েছেন মডেল। অশ্লীলতার অভিযোগ আনা হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। পাশাপাশি ভুল তথ্যমূলক বিজ্ঞাপনের অভিযোগ তো রয়েছেই। দুই অভিযোগের ভিত্তিতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে নিত্থাকার্নকে। আপতত পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে তাঁকে। দোষ প্রমাণিত হলে এক বছরের জেল হতে পারে উঠতি মডেলের। এই হাজতবাস থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ২ লক্ষ টাকা জরিমানা দিতে হবে তাঁকে।

[‘আমার স্তন আছে, তো…’, কড়া বার্তায় বিদ্রুপের জবাব অভিনেত্রীর]

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই লিঙ্গ ফর্সা করার হিড়িক পড়ে গিয়েছিল তাইল্যান্ডে। তাও এবার এক ভাইরাল ভিডিওর সৌজন্যে। যা প্রকাশিত হয়েছিল একটি স্থানীয় ক্লিনিকের সৌজন্যে। যেখানের পুরুষাঙ্গর মেলানিন কমিয়ে তা ফর্সা করে তোলা হচ্ছিল। শোনা গিয়েছিল, মাত্র কয়েকমাসেই প্রায় ১০০ জন পুরুষ নিজেদের লিঙ্গ এভাবে ফর্সা করিয়েছিলেন। মাত্র ৩০ হাজার টাকাতেই মিলছিল এমন সুবিধা। সে ঘটনায় অবশ্য কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। তবে নিত্থানিনের এমন উসকানিমূলক ভিডিও এমন ঘটনার জন্য দায়ী বলে দাবি করছেন অনেকে। অবশ্য ক্লিনিকের তরফে তখন দাবি করা হয়েছিল, যাঁরা পুরুষাঙ্গের রং পরিবর্তন করিয়েছেন, এমন পুরুষরা বেশিরভাগই সমকামী।

[বাড়িতে ঢুকলেই কেন ফোন খারাপ? ৩০ বার মোবাইল পালটেও নাজেহাল এই ব্যক্তি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement