BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘এখনই বিদায় নেবে না করোনা, ছড়াতে পারে নতুনভাবে’, ফের সতর্ক করল WHO

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 30, 2020 9:55 am|    Updated: June 30, 2020 5:32 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা নামক মারক ব্যাধি থেকে এখনই নিস্তার নেই। এখনও অনেক অপেক্ষা করতে হবে। এ বিপদ এত সহজে কাটার নয়। COVID-19-এর এখনও শক্তিক্ষয় হয়নি। বিশ্বব্যাপী লকডাউন তুলে দেওয়ার তাড়াহুড়োর মধ্যেই নতুন করে সতর্কবার্তা দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Coronavirus

চিন করোনা ভাইরাসের বিপদ নিয়ে WHO-কে সতর্ক করেছিল ঠিক ছ’মাস আগে। তারপর বহু ঢিলেমির অভিযোগ উঠেছে। আমেরিকা অভিযোগ করেছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাফিলতির জেরে করোনা আজ মহামারির আকার নিয়েছে। আবার WHO দাবি করেছে, আমেরিকা-সহ বহু দেশ তাদের দেওয়া সতর্কবার্তাকে গুরুত্ব দেয়নি। কারণ যাই হোক, করোনা আজ বিশ্বব্যাপী ত্রাস সৃষ্টি করেছে। বিশ্বজুড়ে এর কবলে পড়েছেন এক কোটিরও বেশি মানুষ। প্রাণ গিয়েছে ৫ লক্ষেরও বেশি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, এখানেই শেষ নয়। আরও বিপদ বাকি আছে।

[আরও পড়ুন: বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ছাড়াল ৫ লক্ষের গণ্ডি, রেকর্ড হারে বাড়ছে সংক্রমণও]

সোমবার এক ভারচুয়াল সাংবাদিক বৈঠকে WHO’র ডিরেক্টর-জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়েসুস (Tedros Adhanom Ghebreyesus) বলছিলেন, “আমরা সবাই চাই, এটা শেষ হোক। আমরা সবাই স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চাই। কিন্তু কঠিন বাস্তব হল, করোনা বিদায় নেওয়ার ধারেকাছেও নেই। কয়েকটা দেশ ভালভাবে প্রতিরোধ করলেও এই মহামারি আরও ছড়িয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষেরই এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা আছে। ভাইরাসটি নতুন নতুন জায়গায় ছড়ানোর সম্ভাবনাও প্রবল।”

[আরও পড়ুন: সামাজিক দূরত্বের গেরোয় ফাঁকা ট্রাম্পের সভা, ভিড় বাড়াতে ছেঁড়া হল ‘Do not sit’ স্টিকার]

মহামারির বিদায় নেওয়া নিয়ে আশার কথা না শোনাতে পারলেও, টিকা আবিষ্কার নিয়ে সুসংবাদ দিয়েছেন WHO’জরুরি বিভাগের কর্তা মাইকেল রায়ান। তিনি বলেন, “নিরাপদ এবং কার্যকরী প্রতিষেধক আবিষ্কারের দিকে দ্রুত গতিতে এগোচ্ছে বিশ্ব। প্রতিষেধক তৈরির কাজে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। তবে তার মানে এই নয় যে, করোনার টিকা আবিষ্কৃত হবেই।” উল্লেখ্য, করোনা মহামারী ছড়ানোর ৬ মাসের বেশি সময় হয়ে গেলেও এর উৎসস্থল নিয়ে ধোঁয়াশা এখনও কাটেনি। সেই ধোঁয়াশা মেটাতে ফের চিন যাচ্ছে WHO’র একটি প্রতিনিধিদল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement