BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ট্রাম্পের মুখে নওয়াজের তারিফ, প্রশংসা পাকিস্তানকেও

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 1, 2016 1:15 pm|    Updated: December 1, 2016 1:15 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফেরও নাকি ভূয়সী প্রশংসা করেছেন সদ্য নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ তাঁর দেশের যেকোনও সমস্যার সমাধানে তিনি নাকি পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন৷ বুধবার রাতে পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের সঙ্গে ট্রাম্পের কথোপকথনে নাকি এমনই প্রতিশ্রুতি মিলেছে৷ অন্তত, পাক প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে একটি প্রেস বিবৃতিতে এমনটাই দাবি করা হয়েছে৷

পাকিস্তানের দাবি, বুধবার রাতে সদ্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ট্রাম্পকে অভিনন্দন জানাতেই ফোন করেছিলেন শরিফ৷ আর তাতেই দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধানের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ কথোপকথন হয়৷ টেলিফোনে কিছুটা মশকরা করে পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে ট্রাম্প বলেন, তিনি নাকি একজন ভয়ঙ্কর মানুষ৷ পাশাপাশি শরিফের কাজের সুনামও সুবিদিত বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প৷

এখানেই শেষ নয় আর চমক বাকি রয়েছে৷ শরিফ-ট্রাম্প কথোপকথনের সময় ট্রাম্পকে নিজের দেশে আমন্ত্রণও জানাতেও ভোলেননি পাক প্রধানমন্ত্রী৷ শরিফের সেই আমন্ত্রণে সম্মতি জানিয়ে ট্রাম্প নাকি পাকিস্তানকে সুন্দর দেশ আখ্যা দিয়ে সে দেশ সফর করার জন্য আগ্রহও দেখিয়েছেন৷ ট্রাম্পের কথায় প্রশংসিত হয়েছেন পাকিস্তানিরাও৷ আর সব থেকে আশ্বর্যজনক ভাবে নিজে দায়িত্ব নিয়ে পাকিস্তানের সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন মুসলিম বিদ্বেষী বলে পরিচিত ট্রাম্প৷ বলেন, ২০ জানুয়ারির আগে যে কোনও সময় শরিফের জন্য ট্রাম্পের ফোন খোলা রয়েছে৷

শুধু পাক প্রধানমন্ত্রীর দফতর নয়, আমেরিকার খ্যাতনামা টাইম ম্যাগাজিনেও নাকি ট্রাম্প-শরিফ কথোপকথন তুলে ধরা হয়েছে ৷ যদিও ট্রাম্প-শরিফ কথোপকথনে ভারত সম্পর্কিত কোনও আলোচনার কথা শোনা যায়নি৷

যদিও নির্বাচন ক্যাম্পেনে অবশ্য ট্রাম্পের বক্তব্য ছিল ঠিক উল্টোটা৷ সেখানে পাকিস্তানকে পৃথিবীর একটা ভয়ঙ্কর স্থান হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে৷ সেখানে ভারতের সঙ্গে একত্রিত হয়ে পাকিস্তানকে শায়েস্তা করার কথাও বলেছিলেন সেসময় মার্কিন রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী ট্রাম্প৷ শুধু তাই নয়, ট্রাম্পকে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে তুলনা করতেও ছাড়েননি তিনি৷ শুধু নির্বাচনী প্রচারই নয়, জিতে আসার পরও মার্কিন মুলুকে ইসলাম ধর্মলম্বীরা যে খুব সুখে আছে সেকথা খুব একটা শোনা যাচ্ছে না৷ কারণ ট্রাম্প মুসলিম বিদ্বেষী বলেই সুবিদিত৷ প্রসঙ্গত, পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিতে নাম জড়িয়েছে পাক প্রধানমন্ত্রী এবং তার পরিবারের বেশ কয়েকজনের৷ যা বর্তমানে তদন্তাধীন৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে