BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২০ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

OMG! যৌন হেনস্তার অভিযোগে মার্কিন প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ দাবি পেন্টাগনের!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 17, 2017 5:54 am|    Updated: September 23, 2019 5:54 pm

Trump to resign over sexual harassment, Pentagon ‘accidentally’ retweets

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  নারীসঙ্গ-ই হোক কিংবা মহিলাদের যৌন হেনস্থা, তাঁকে নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। এমনকী, প্রিসেন্স ডায়নার সঙ্গে তিনি যে যৌনতায় লিপ্ত হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন, সেকথা খোলাখুলি স্বীকার করতেও দ্বিধা করেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাই মহিলার যৌন হেনস্থার অভিযোগে ট্রাম্পের পদত্যাগের দাবি তুলে টুইট করেছিলেন এক ব্যক্তি। আর খোদ মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রকের সদর দপ্তর পেন্টগোনের টুইটার অ্যাকাউন্ট সেই টুইটটি আবার রিটুইট করা হল!  ঘটনায় শোরগোল পড়েছে মার্কিন মুলুকের। যদিও পেন্টাগনের মুখপাত্র কর্ণেল বর ম্যানিং জানিয়েছেন, নেহাতই ভুলবশত টুইটটি রিটুইট করে ফেলেন এক কর্মী। দ্রুত নিজের ভুল বুঝতে পেরে টুইটটি মুছেও দিয়েছেন তিনি। কিন্তু ততক্ষণে যা হওয়ার হয়ে গিয়েছে।

[চলন্ত ট্রেনে বর্ণবিদ্বেষী হামলার শিকার এক এশীয়, সহযাত্রীরা নীরব]

কিন্তু, কীভাবে ঘটল এমন ঘটনা? বৃহস্পতিবার @ProudResister নামে একটি অ্যাকাউন্ট টুইট করেছিলেন এক ব্যক্তি। টুইটটিতে লেখা ছিল, ‘সমাধান খুবই সহজ। রয় মুর:  দৌড় থেকে সরে দাঁড়ান। আল ফ্রাঙ্কেন:  কংগ্রেস থেকে পদত্যাগ করুন। ডোনাল্ড ট্রাম্প:  প্রেসিডেন্ট পদ থেকে পদত্যাগ করুন। আপনাদের দ্বিচারিতার মতোই যৌন হেনস্তা একটা অপরাধ।’  সোশ্যাল মিডিয়ায় তো নানা বিষয়ে নিজেদের মতামত জানান নেটিজেনরা। ওই ব্যক্তিও ঠিক তেমনটাই করেছিলেন। কিন্তু, বিপত্তি বাধে অন্যত্র। যে টুইটে খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পদত্যাগের দাবি করা হয়েছে, সেই টুইটটি যে খোদ পেন্টাগনের টুইটার হ্যান্ডল থেকে রিটুইট করা হয়! প্রসঙ্গত, ফেসবুকে যেমন কোনও পোস্ট, ছবি বা ভিডিও পছন্দ হলেও লাইক করার অপশন থাকে, তেমনি টুইটারে কোনও বার্তা পছন্দ হলে সাধারণত সেটি রিটুইট করে থাকেন ইউজাররা। সুতরাং মানেটা খুব পরিস্কার, যৌন হেনস্তার অভিযোগে মার্কিন প্রেসিডেন্টের পদত্যাগের দাবিকে সমর্থন করছে পেন্টাগন!

[ডোনাল্ড ট্রাম্পকে মৃত্যুদণ্ডের ‘নির্দেশ’, প্রবল চাঞ্চল্য পেন্টাগনে]

পরিস্থিতি সামাল দিতে তড়িঘড়ি বিবৃতি দিয়ে নিজেদের ভুল স্বীকার করে নেয় মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রক। পেন্টাগনের মুখপাত্র কর্ণেল বর ম্যানিংযের বক্তব্য, যিনি ওই টুইটটি রিটুইট করেছেন, তিনি পেন্টাগনে টুইটার হ্যান্ডলটি পরিচালনার দায়িত্বে আছেন। নেহাতই ভুলবশত এই কাজ করে ফেলেছেন ওই ব্যক্তি। ভুল বুঝতে পেরে দ্রুত টুইটটি মুছেও ফেলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রকের ওই কর্মী। তবে ভবিষ্যতে এই ধরণের ঘটনা বরদাস্ত করা হবে না।

[ভারতে ফতোয়া, সৌদিতে ক্রীড়ার স্বীকৃতি পেল যোগ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে